কৃষকদের পাওনা নিযে চিঠি প্রধানমন্ত্রীকে

বিজেপি মানুষের রায় মেনে নিকঃ মমতা

ভোটের ফল প্রকাশের পরও রাজ্যজুড়ে চলছে রাজনৈতিক হিংসা। যা নিয়ে প্রতিনিয়ত চলছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। এরমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এক চার সদস্যের প্রতিনিধি দল কলকাতায় এসে পৌঁছেছেন। এবার রাজনৈতিক হিংসার জন্য বিজেপিকেই দায়ী করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বললেন, ‘কোচবিহারে হিংসা বেশি হচ্ছে। গুন্ডামি হচ্ছে। উদয়নের হাত ভেঙে দেওয়া হয়েছে। কোথায় কোথায় হিংসা হচ্ছে, আমরা খতিয়ে দেখছি। আসলে বিজেপি মানুষের রায় মেনে নিতে পারেনি। তাই ওরা গন্ডগোল করছে। বিজেপি-কে বলব, মানুষের রায় মেনে নিন’। এরপরই তিনি অভিযোগ করেন, ভোট মিটে যাওয়ার পরও কেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা বাংলায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন? মমতার কথায়, শপথের কয়েক ঘণ্টা পরেই বাংলায় এসেছে কেন্দ্রীয় দল। কেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা এখনও বাংলায়। যখন অক্সিজেন, ভ্যাকসিন পাওয়া যাচ্ছে না তখন তাঁরা আসছেন না কেন? দিল্লির দাঙ্গার পর কেন কেন্দ্রীয় দল আসে না?


বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলন থেকে মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য একহাত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। ভোট পূর্ব প্রতিশ্রুতির কথা স্মরণ করিয়ে মুখ্যমন্ত্রী যে প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠিও দিয়েছেন সেটাও জানালেন মমতা। সেই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘রাজ্যে বার বার এসে আপনি বলেছেন, প্রত্যেক কৃষককে ১৮ হাজার করে টাকা ভাতা দেওয়া হবে। কিন্তু এখনও রাজ্যের কোনও কৃষক সেই ভাতা পাননি। তাই আমি অনুরোধ করছি যত দ্রুত সম্ভব পিএম কিষাণ প্রকল্পের আওতায় থাকা কৃষকদের টাকা দেওয়া হোক ও ২১ লক্ষ ৭৯ হাজার কৃষকের তথ্য প্রকাশ করা হোক’। এই চিঠির কথা উল্লেখ করে এদিন মমতা বলেন, গত বছর ৩১ ডিসেম্বর তিনি কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছিলেন। কিন্তু সেই চিঠির কোনও নির্দিষ্ট জবাব তিনি পাননি।

Tags:
cm mamata banerjee
pm modi
Farmers Protest
nabanna
WB election 2021