আজও বিতর্কে ২১ জুলাই

রাজ্যের পাশাপাশি এবার ভিনরাজ্যে একুশের শহিদ দিবস পালন করল তৃণমূল। পাল্টা ওই দিন শহিদ শ্রদ্ধাঞ্জলি দিবস পালন করল বিজেপি। কিন্তু আজও বিতর্কিত একুশে জুলাই। 

১৯৯৩ সাল। মহাকরণ অভিযানের ডাক দিয়েছিল যুব কংগ্রেস। তখন প্রদেশ যুব কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখনও তৃণমূল কংগ্রেস তৈরি হয়নি। সেই দিন পুলিসের গুলিতে যারা শহিদ হয়েছিলেন তারা সবাই কংগ্রেস কর্মী। যুব কংগ্রেস এর তরফ থেকে তারপর প্রতি বছরই পালন করা হয় শহিদ দিবস। 

১৯৯৮ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেস তৈরি করেন। তারপর থেকে কার্যত তৃণমূলের হাতেই চলে গিয়েছে শহিদ দিবস। তবুও প্রতি বছর যুব কংগ্রেস পালন করে শহিদ দিবস। এ বছরও তারা গঙ্গায় তর্পণ করে পালন করল শহিদ দিবস। অন্যদিকে বিজেপি পালন করল শহিদ শ্রদ্ধাঞ্জলি দিবস। ফলে প্রশ্ন উঠেছে ? ২১ শে জুলাই কার ?

এদিকে এবার ভিনরাজ্যে তৃণমূল একুশের শহিদ দিবস পালন নিয়ে শাসক দলকে কটাক্ষ বিজেপি নেতা তথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। তিনি বলেন, বাইরের রাজ্যে তৃণমূলের শহিদ দিবস হল গরুর গাড়ির হেডলাইট।  উত্তরপ্রদেশ, আসাম, ত্রিপুরায় তৃণমূল ভোটে লড়েছে। সেখানে নোটার থেকেও কম ভোট পেয়েছে। 

রাজ্যে ২১শে জুলাই তৃণমূলের শহিদ দিবসের দিনই হেস্টিংসে বিজেপির কার্যালয়ে "গণতন্ত্র বাঁচাও, পশ্চিমবঙ্গ বাঁচাও" কর্মসূচি পালন করল বিজেপি। পাশাপাশি জেলায় জেলায় পালিত হয়  শহিদ শ্রদ্ধাঞ্জলি দিবস। 


Tags:
21 July
jubo congress
tmc
bjp