ফাইল চিত্র

Vaccine: দ্রুত টিকাকরণের আওতায় রাজ্যের কলেজ পড়ুয়ারা, উদ্যোগ নিচ্ছে স্বাস্থ্য দফতর

করোনা অতিমারীর জের বন্ধ রাজ্যের স্কুল-কলেজ। তবে পুজোর পর যে স্কু-কলেজ খুলতে পারে তার আভাস দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও রাজ্যের প্রায় ৫.২ কোটি নাগরিক ইতিমধ্যে করোনার টিকাকরণের আওতায় এসেছেন। এবার সব কলেজের পড়ুয়াদের দ্রুত টিকার  আওতায় আনা হবে। যে সব শিক্ষাকর্মীর টিকা পাওয়া বাকি, তাঁদেরও আনা হবে টিকাকরণের আওতায়। এমনই সিদ্ধান্ত নিল স্বাস্থ্য দপ্তর।কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের সঙ্গেই অধ্যাপক ও শিক্ষা কর্মীদেরও যাতে ভ্যাকসিনের আওতায় আনা যায় সেই ব্যবস্থাও নিতে হবে।

একটি ভ্যাকসিন সেন্টারে যাতে একদিন যথেষ্ট পরিমাণে টিকা নেওয়ার মতো উপভোক্তা থাকে তাও দেখতে হবে। সমস্ত দিক পর্যালোচনা করেই শিক্ষা দপ্তরের কর্তাদের সঙ্গে সমন্বয় রেখেই এই কাজ করতে হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। এর আগে এই বিষয়ে রাজ্যের মুখ্য সচিবের  সঙ্গে আলোচনা হয় স্বাস্থ্য কর্তাদের।

রাজ্য সরকার টার্গেট নিয়েছে পুজোর পরপরই শিক্ষাঙ্গনগুলি সক্রিয় করার। সেক্ষেত্রে প্রত্যেক পড়ুয়া এবং শিক্ষাকর্মীদের টিকাকরণ হওয়াটা জরুরি। বস্তুত, রাজ্যের টিকাকরণের  হার অন্য রাজ্যের তুলনায় সন্তোষজনক। ইতিমধ্যেই রাজ্যের সমস্ত স্কুল শিক্ষকদের টিকাকরণের আওতায় আনা গিয়েছে বলে দাবি সরকারের। তাই এবার কলেজ পরিউয়াদের টেক্কা দেওয়ার কথা জানালেন স্বাস্থ্য দফতর।

Tags:
Vaccine
college student