ফাইল চিত্র

Hilsa: পুজোর আগে খুশির খবর, রাজ্যে এল ১৬ টন পদ্মার ইলিশ

সামনেই দুর্গাপুজো। বাঙালি মানেই ভোজনরসিক। আর দুপুরের খাবার মানেই মাছ- ভাত । এদিকে বর্ষার রুপোলি মাছ হিসেবে ধরা হয় ইলিশ মাছকে। যদিও পুজোর আগে পশ্চিমবঙ্গবাসীকে পদ্মার ইলিশ উপহার দেওয়ার কথা জানিয়েছিল বাংলাদেশ। প্রতিশ্রুতি মতোই ১৬ টন ইলিশ ইতিমধ্যেই পৌঁছল রাজ্যে। বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে তিনটি ট্রাকে করে রুপালি শস্য এসে পৌঁছায় রাজ্যে। বাংলাদেশ মৎস্য বিভাগের তরফে আগেই জানানো হয়, এরাজ্যে পদ্মার রুপোলি শস্য পাঠাবে সেদেশের সরকার। মোট ২০৮০ মেট্রিক টন ইলিশ আসবে।

বুধবার সন্ধ্যায় বনগাঁ পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে তিনটি ট্রাকে করে ১৬ টন ইলিশ প্রথম প্রবেশ করে ভারতে। আজ আরও ১১ ট্রাক ইলিশ ভারতে প্রবেশ করার কথা রয়েছে। পুজো উপলক্ষেই বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে এই উপহার ভারতকে। মোট ২০৮০ টন ইলিশ পাঠানো কথা রয়েছে পস্চিমবঙ্গে, যার মধ্যে তিনটি গাড়িতে ১৬ টন ইলিশ এসে পৌছেছে। ১১টি গাড়ি এখন বাংলাদেশে আছে। সেই গাড়িগুলিও ধিরে ধিরে প্রবেশ করবে। গতবারও হাসিনা সরকার পুজোর আগে ইলিশ পাঠিয়েছিলেন ভারতে।এবছরও কথামত ইলিশ পাঠাল বাংলাদেশ সরকার। আশা করা যায় পুজোর মধ্যে আপামর বাঙালির পাতে উঠবে বাংলার পদ্মার ইলিশ।

এদিকে আজ সকালে কিন্তু হাওড়া মাঃ বাজারে মিলছে পদ্মার ইলিশ। তবে এই একটানা বৃষ্টি কিংবা করোনা মহামারীর কারণে ভাবা হচ্ছিল এই বছরেও মিলবেনা ইলিশ। কিন্তু ছবি একেবারে বদলে গেল। ২০২১ সাল থেকে বাংলাদেশ সরকার ইলিশ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। তবে গত তিন বছর পুজোর আগে উপহার হিসাবে কিছু ইলিশ বাংলাদেশ সরকার পাঠায়। গত বছরে দুই হাজার মেট্রিক টন ইলিশ কলকাতায় আসে‌। তবে এবারে মাছ আসতে এক সপ্তাহ দেরি হয়েছে। তবে যেহেতু স্থানীয় ইলিশের উৎপাদন এবছরে কম তাই বাংলাদেশি ইলিশ কিছুটা হলেও সেই ঘাটতি মেটাবে।

Tags:
Hilsa
state