ব্রেকিং নিউজ
In-Assam-flood-waters-are-flowing-over-straw-shed
Assam Flood: অসমে খড়ের চালের ওপর দিয়ে বইছে বন্যার জল

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-07-01 12:07:34


অসমের বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ। ২,৬০৮ টি গ্রামের প্রায় ৩০ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত। এ পর্যন্ত এই বছরের এপ্রিল থেকে বন্যা পরিস্থিতি ও ভূমিধসের কারণে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫৯। খাদ্য ও পানীয় জলের সংকটে দুর্গতরা। রাজ্যের ২৫ টি জেলা বন্যা কবলিত। গ্রামগুলিতে বন্যার জল প্রায় খড়ের ছাদের উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় এই গ্রামগুলিতে কয়েকশো বাড়ি সম্পূর্ণভাবে প্লাবিত হয়েছে। সরকারি ত্রাণ মাঝে মধ্যে এলেও তা অপ্রতুল, বলছেন দুর্গতরা।অনেক জায়গাতেই পর্যাপ্ত নৌকা নেই, সেখানে কলার ভেলা ভরসা। পর্যাপ্ত ত্রাণসামগ্রী সরবরাহ করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন বন্যা কবলিতদের। 

যে সব জেলা এখনও বন্যার জলের তলায় ডুবে আছে, সেগুলি হল বাজালি, বরপেটা, বিশ্বনাথ, কাছাড়, চিরাং, দররাং, ধেমাজি প্রভৃতি। এর মধ্যে কাছাড় টানা তৃতীয়দিনের জন্য সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত জেলা। কাছাড়ে প্রায় ১৪.৩২ লক্ষ লোক ক্ষতিগ্রস্ত। নগাঁওয়ে প্রায় ৫.২০ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত। বরপেটাতে ৪ লক্ষেরও বেশি লোক ক্ষতিগ্রস্ত। 

৩.০৫ লক্ষেরও বেশি লোক ২২ টি জেলা জুড়ে ৫৫১ টির মতো ত্রাণ শিবিরে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। মরিগাঁও জেলার হাজার হাজার বন্যাকবলিত মানুষ জাতীয় সড়ক ৩৭-এ আশ্রয় নিচ্ছে। গবাদি পশুও মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

সেনাবাহিনী, আধাসামরিক বাহিনী, ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ), স্টেট ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এসডিআরএফ), ফায়ার অ্যান্ড ইমার্জেন্সি সার্ভিসেস (এফএন্ডইএস), অসম পুলিসের কর্মী, সিভিল ডিফেন্স, প্রশিক্ষিত স্বেচ্ছাসেবক এবং স্থানীয় প্রশাসন তাদের উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র, কপিলি, বুরহিডিহিং ও বেকি নদী বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে, অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা বৃহস্পতিবার বন্যা কবলিত জেলাগুলির জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে একটি ভিডিও কনফারেন্স করেন। মুখ্যমন্ত্রী জেলা প্রশাসকদের তাদের ত্রাণ ব্যবস্থা জোরদার করতে এবং সমস্ত ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করতে বলেছিলেন।

মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান যে রাজ্য সরকার ত্রাণ শিবিরে থাকা প্রতিটি পরিবারকে ৩,৮০০ টাকা দেবে। একটি টাস্ক ফোর্সের দ্বারা গবাদি পশু এবং অন্যান্য ক্ষতির তালিকা প্রস্তুত করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সার্কেল অফিসার স্তরে তা গঠন করা হবে এবং ৭ আগস্টের মধ্যে জমা দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, বন্যার ফলে যেসব ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার উপকরণ নষ্ট হয়েছে তাদের সরকার ১০০০ টাকা দেবে।

অন্যদিকে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় কেন্দ্রীয় দল বৃহস্পতিবার তিন দিনের সফরে গুয়াহাটিতে পৌঁছেছে। রাজ্য সরকার, ভারতীয় সেনাবাহিনী, এনডিআরএফ, এসডিআরএফ, এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে সবরকম ব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেছে।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন