ব্রেকিং নিউজ
Deterioration-of-flood-situation-in-north-east-including-Assam-assurance-of-help-by-concerned-center
Assam: অসম সহ উত্তর-পূর্বে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, উদ্বিগ্ন কেন্দ্রের সাহায্যের আশ্বাস

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-06-22 12:10:49


অসম সহ উত্তর-পূর্বের একাধিক রাজ্যের নাজেহাল দশা। এখনও পর্যন্ত বন্যার জেরে অসম, মেঘালয় এবং অরুণাচলপ্রদেশে মোট ১৩১ জন মারা গিয়েছেন। মঙ্গলবার শুধুমাত্র অসমেই ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। বন্যার জেরে রাজ্যের ৩২ জেলার প্রায় ৪৭ লাখ মানুষের জনজীবন সংকটে। প্লাবিত হয়েছে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার গ্রাম। তলিয়ে গিয়েছে অসংখ্য ঘরবাড়ি, ভেসেছে গৃহপালিত পশুরাও।

এদিকে অসমের সামগ্রিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কেন্দ্রও। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার সঙ্গে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কেন্দ্রের তরফে সব ধরনের সাহায্যের বার্তা দেওয়া হয়েছে বন্যা কবলিত রাজ্যগুলিকে।

এছাড়াও ব্রহ্মপুত্র ও বরাক নদীসহ অন্যান্য উপনদীগুলি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা বন্যা কবলিত নলবাড়ি এবং কামরুপ জেলায় ত্রাণশিবির পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেছেন, "আমাদের সরকার শীঘ্রই ক্ষতিগ্রস্ত লোকদের জন্য তাঁদের গবাদি পশুর ক্ষতি এবং বন্যার কারণে হওয়া অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতি নথিভুক্ত করার জন্য একটি পোর্টাল চালু করবে। একটি বন্যা ত্রাণপ্যাকেজও শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে।"

অন্যদিকে কাছাড়ের ৫০৬ টি গ্রামে ২ লাখ ২৬ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। করিমগঞ্জে ৪৫৪ টি গ্রামে ১ লাখ ৪৭ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শিলচরের বেশ কিছু এলাকা এখনও জলের তলায়। মোট ৪২৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং ৫৭ টি ত্রাণ শিবিরে মোট ১০৪৬৮ জনকে রাখা হয়েছে।

পরিবহন মন্ত্রী পরিমল সুক্লাবৈদ্য স্থানীয় বিধায়ক, জেলা প্রশাসক এবং কাছাড় ও করিমগঞ্জ উভয়ের সিনিয়র জেলা আধিকারিকদের সঙ্গে নিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেছেন। পরিবহন মন্ত্রী পরিমল সুক্লাবৈদ্য জানান, ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসকদের বন্যা কবলিত এলাকায় এনডিআরএফ ইউনিটের কৌশলগত মোতায়েন করার জন্য একটি পরিকল্পনা তৈরি করতে বলা হয়েছে।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন