ব্রেকিং নিউজ
partha-chatterjee-sought-immediate-bail-after-serving-ed-custody
Court: ১৪ দিনের জেল হেফাজতে পার্থ-অর্পিতা, দু'জনের আলাদা জেল

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-08-05 16:28:56


১৮ অগাস্ট পর্যন্ত জেল হেফাজতে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তাঁদের জামিনের আবেদন খারিজ করে ১৪ দিনের জেল হেফাজত দিয়েছে ব্যাঙ্কশাল আদালত। শুক্রবার  প্রায় ১৪ দিনের ইডি হেফাজত (ED Custody) শেষে শুক্রবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে (Partha-Arpita) তোলা হয়েছিল ব্যাঙ্কশাল আদালতে। ধৃত দু'জনই এদিন জামিনের পক্ষে সওয়াল করেছিল। যদিও তদন্তের অগ্রগতির স্বার্থে ইডি জেল হেফাজতের আবেদন করেছে কোর্টে। শুক্রবার প্রায় এক ঘণ্টার সওয়াল-জবাব শেষে সন্ধ্যার দিকে এই রায় দিয়েছে আদালত। জানা গিয়েছে, দু'জনকে দুটি আলাদা সংশোধনাগারে রাখা হবে। প্রেসিডেন্সি জেলে থাকবেন পার্থ আর আলিপুরে রাখা হবে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। এবার দেখে নিন এদিনের শুনানিতে দুই পক্ষের ঠিক কী সওয়াল-জবাব করা হয়েছিল--

এদিন শুনানিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায় আইনজীবী জানান, ইডি বলেছে অর্পিতার  ৩১টি জীবনবিমায় পার্থ চট্টোপাধ্যায় নমিনি আছেন। কিন্তু আমরা জানি জীবন বিমায় শুধু পরিবারের লোকের নাম থাকতে পারে। এখানে দু'জনের পদবী আলাদা, তাহলে কীভাবে পার্থবাবু নমিনি হন? কেন্দ্রীয় সংস্থা আরও বলেছে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের যৌথ সম্পত্তি আছে। কিন্তু তার কোনো কোর্ট রেজিস্ট্রেশন কাগজ নেই।

পাশাপাশি আইনজীবীর দাবি, 'পিএমএলএ আইন অনুযায়ী কোনও ক্রিমিনাল ব্যাক গ্রাউন্ড না থাকলে, বিধায়কদের গ্রেপ্তারির ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম মানতে হয়। কিন্তু কেন্দ্রীয় সংস্থা কিছুই মানেনি। আমার মক্কেলের কোনও ক্রিমিনাল কেস নেই। আমার মক্কেল কোথাও পালাচ্ছে না, উনি পালানোর লোক নয়। উনাকে এখনই জামিন দেওয়া হোক। ইতিমধ্যে ইডি হেফাজত শেষ, পার্থবাবুর বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ জোগাড় করতে পারেনি ইডি।' 

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী জানান, আমার মক্কেলের স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে নাটক হচ্ছে। ব্যাঙ্কশাল কোর্ট পার্থবাবুকে এসএসকেএম হাসপাতালে থাকতে নির্দেশ দিয়েছিল। তাও তাঁকে ভুবনেশ্বর নিয়ে যাওয়া হলো। সেখানের রিপোর্টে বলা পার্থবাবু অসুস্থ। কিন্তু তাও তাঁকে টানা হ্যাচরা করছে, মানসিক চাপ দিচ্ছে।

তাঁর আইনজীবী আদালতকে আরও বলেন, 'কেউ কোনওদিন বলেনি পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের টাকা নিয়েছেন। যা ছড়াচ্ছে সেটা রাজনৈতিক ও মিডিয়ার অপপ্রচার। হাইকোর্ট বলেছিল সিবিআই মামলার দায়িত্ব নেবে, আর্থিক দুনীতি হলে ইডির সাহায্য নেবে। ইডির এই গ্রেপ্তারি যুক্তিযুক্ত নয়। কোনও প্রমাণ ছাড়াই সংস্থা গ্রেপ্তার করেছে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় কোনও দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত নয়। তাঁর বাড়ি থেকে কোনও টাকা উদ্ধার হয়নি। এতদিন ইডি হেফাজতে কী লাভ হলো? তদন্তকারী সংস্থা বলছে পার্থ সাহায্য করছে না। কিন্তু একটা মানুষ যদি কিছু না জানে তবে কী বলবে?'

আমার মক্কেলের বয়স প্রায় ৭৫ বছর, শরীরও খারাপ। উনি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফার কথাও ভাবছেন। তাই জামিন চাইছি, তদন্তকারী সংস্থা জেল হেফাজত চাইছে। কিন্তু এটা রাজনৈতিক ইস্যু, মিডিয়া ইস্যু। এটা মূল সিবিআই মামলা, হাইকোর্টের নির্দেশের পর সিবিআই দায়িত্ব নিয়েছে। কিন্তু ইডি এখানে উপযাজক হয়ে গ্রেফতার করল। এদিকে মূল মামলা সিবিআইয়ের হাতে, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলা। এভাবেও পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামিনের পক্ষে সওয়াল করেন তাঁর আইনজীবী।

এদিকে, ইডির আইনজীবী সওয়াল করেন, 'অর্পিতার দুই বাড়ি থেকে ৪৯ .৮ কোটি টাকা পাওয়া গিয়েছে। দলিলে মালিকানা হিসেবে দু'জনের নাম পাওয়া গিয়েছে। ৫০টির বেশি ব্যাংক একাউন্ট  দুজনের। জেলেও তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন আছে। তাই ধৃত দু'জনকে জেল হেফাজতে পাঠানোর অনুমতি দেওয়া হোক। অর্পিতার জন্য বিশেষ নিরাপত্তার পক্ষেও এদিন সওয়াল করা হয়েছে। হুমকি পাচ্ছে অর্পিতা, উনি গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী। তাই বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হোক তাঁকে। জল-খাবার দিলে, সেটা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হোক।

অপরদিকে, অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের আইনজীবী জানান, আমার মক্কেলের সামাজিক সম্মান আছে। আমার জীবন চলাচল পদ্ধতি ব্যাঘাত ঘটছে। এই সওয়াল জবাবের পরেই শুনানি শেষে রায়দান স্থগিত রেখেছিল আদালত। 






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন