০২ মার্চ, ২০২৪

Sheikh Shahjahan: সন্দেশখালির মামলায় যুক্ত হতে চান, আবেদন নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে শেখ শাহজাহান!
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-15 15:36:02   Share:   

সন্দেশখালিতে ইডি আধিকারিকদের ওপর হামলার ঘটনার পর কেটে গিয়েছে ১০ দিন। কিন্তু এখনও অধরা মূল অভিযুক্ত শেখ শাহজাহান। আর এই নিয়ে এবারে পুলিসের ভূমিকা নিয়ে  প্রশ্ন তুলেছে কলকাতা হাইকোর্ট। পুলিসের 'ইনঅ্যাকশন' দেখে কার্যত বিস্ময় প্রকাশ করলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি। তাঁর প্রশ্ন, 'যে ঘটনায় প্রায় তিন হাজার মানুষ অভিযুক্ত, সেই ঘটনায় মাত্র ৪ জনকে কেন গ্রেফতার করা হল? আর সোমবার এরই মাঝে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন শেখ শাহজাহানের আইনজীবী। আইনজীবী মারফত শাহজাহান হাইকোর্টকে জানান, তিনি সন্দেশখালির মামলায় যুক্ত হতে চান। কারণ, তিনি চান এই ঘটনায় তাঁর বক্তব্যও শোনা হোক। কিন্তু তাতেও বিচারপতির ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হয় শাহজাহানের আইনজীবীকে।

ইডির আইনজীবী এসভি রাজু সন্দেশখালির ঘটনার সিবিআই তদন্ত চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন। মামলায় আদালতের ভর্ৎসনার মুখে রাজ্য পুলিস। শেখ শাহজাহানের নামে বাড়িতে থেকে বাইরে অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগ পাওয়ার পরও পুলিস শেখ শাজাহানের বাড়িতে গিয়ে তাঁর খোঁজ করলো না কেন, প্রশ্ন বিচারপতির। 'এটাই পুলিশ ইন অ্যাকশন', মন্তব্য বিচারপতি জয় সেনগুপ্তের। 'এমন মামলায় কেস ডাইরি না দেখে কোনো অর্ডার দেওয়া যায় না। পুলিস এতদিন ধরে কী করেছে সেটা কেস ডাইরি দেখেই বোঝা সম্ভব। কাল কেস ডাইরি আনতে হবে পুলিসকে।' এমনটাই মন্তব্য বিচারপতির। এরপরই রাজ্যের কাছে কেস ডাইরি তলব কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্তের। আগামীকাল রাজ্যকে দিতে হবে কেস ডাইরি ও ভিডিও ফুটেজ। আর সেই দিনের পর লুঠ হওয়া সম্পত্তির মধ্যে কী কী উদ্ধার করতে পেরেছে, তাও জানাতে হবে হাইকোর্টকে। এরপরই শাহজাহানের আইনজীবী মামলায় যুক্ত হওয়ার আবেদন জানান।

শেখ শাহজাহানের আইনজীবীকে বিচারপতির প্রশ্ন, 'আপনার মক্কেল কেন সারেন্ডার করছেন না? এতক্ষণ আপনি এজি কে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। এতক্ষণ আমি ভেবেছি আপনি রাজ্যের জুনিয়র আইনজীবী। আপনি এজি কে থামানোর চেষ্টা করছিলেন কেন? এজি আপনাকে চুপ করতে বলার পরেও আপনি তাঁকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন।' আগামীকালই এই মামলার পরবর্তী শুনানি।


Follow us on :