০৫ মার্চ, ২০২৪

ED: হাজিরা দিলেন না শেখ শাহজাহান, অথচ আছেন বাড়ির কাছেই? জোরকদমে খোঁজ চালাচ্ছে ইডি
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-01-29 14:22:36   Share:   

সোমবার বেলা ১১ টা এগারোটার মধ্যে শেখ শাহজাহানকে ইডি অফিসে আসতে হবে। এমনই নির্দেশ জারি করেছিল তদন্তকারীরা। কিন্তু সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও দেখা মিলল না শেখ শাহজাহানের। সিজিও কমপ্লেক্সে এলেন না তিনি।

গত ৫ জানুয়ারি সন্দেশখালিতে ইডির উপর হামলা হয়েছিল। সেই ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেসের এই নেতা। রেশন বন্টন দুর্নীতি মামলাতেও তিনি অভিযুক্ত। এমন কথা শোনা যাচ্ছে। সে কারণেই তল্লাশি অভিযানে সন্দেশখালিতে তাঁর বাড়িতে পৌঁছেছিলেন তদন্তকারী অফিসাররা। তারপর তাঁরা প্রাণ হাতে সেখান থেকে পালান।

শেখ শাহজাহান নামটা গোয়েন্দামহলে এখন বোধ হয় সবথেকে বেশি চর্চিত। তিনি কোথায়, কেউ জানেন না। তাঁর খোঁজে তোলপাড় ইডি থেকে রাজ্য পুলিস সকলেই। ২৯ তারিখ ইডি তাঁকে তলব করে সিজিও কমপ্লেক্সে। সেই নিয়ে সকাল থেকেই চলছিল জল্পনা। এমন সময় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন শেখ শাহজাহানের ভাই। যদিও তিনি জানান, তাঁর ভাই কোথায় আছে, কিছুই জানেন না তিনি।

কোথাও যেন শেখ শাহজাহানের ভাইয়ের কথায় প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা রয়েছে, এমনটাই মনে করছে বঙ্গের ওয়াকিবহাল মহল। এখনও পর্যন্ত এবিষয়ে তার পরিবার মুখ না খোলায় শেখ শাহজাহানকে নিয়ে দিনদিন বাড়ছে গোয়েন্দামহলের জল্পনা, তা বলাই বাহুল্য।

জানা যাচ্ছে, ইডির কাছে ধরা না দিলেও তিনি রয়েছেন বেশ বহাল তবিয়তে। এমনকি, দূরে কোথাও যাননি তিনি। শেখ শাহজাহান রয়েছেন তাঁর বাড়ি থেকে মাত্র ১ কিলোমিটারের মধ্যেই এক স্থানীয় তৃণমূল নেতার বাড়িতেই।

এছাড়াও উল্লেখযোগ্যভাবে জানা যাচ্ছে, ইডির তরফে জোর তদন্তে মিলেছে শাহজাহানের ২ টি মোবাইলের কল রেকর্ডের কিছু তথ্য। ইডি সূত্রে খবর, ৫ জানুয়ারি ইডির ওপর হামলার আগে শাহজাহান তাঁর দুটি ফোন থেকে ৩ মিনিটের মধ্যেই ২৮ জনকে ফোন করেছিলেন। তারপরেই এক লরি ভর্তি মানুষ এসে হামলা চালিয়েছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের ওপর।  তাই এই ২৮ টি নম্বর কাদের, আপাতত জোরকদমে সেই খোঁজও চালাচ্ছে ইডি।


Follow us on :