০৫ মার্চ, ২০২৪

Jayprakash: বাংলাকে ভাতে মারার চেষ্টা,' ধরনা মঞ্চে এসে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব জয়প্রকাশ
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-02-08 17:58:23   Share:   

জয়প্রকাশ মজুমদার (তৃণমূল মুখপাত্র): মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের বঞ্চনার প্রতিবাদে অবস্থান বা ধরণা কর্মসূচি দিয়েছিলেন। কারণ কেন্দ্র একটা ষড়যন্ত্র করেছে, বাংলাকে পেটে মারবে, ভাতে মারবে এবং সেটা হবে ২০২১ এর নির্বাচনের পরাজয়ের কারণে। যে ষড়যন্ত্র তৈরি করেছে বিজেপি সেই ষড়যন্ত্রের প্রতিফলন হচ্ছে ১০০ দিনের টাকা না দেওয়া। গত আড়াই বছর ধরে বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পের টাকা না দেওয়া। যাতে বাংলা অর্থনৈতিক অবরোধের চাপে পড়ে নতিস্বীকার করে। এটাই ওদের মূল লক্ষ্য।

শুধু তাই নয় এর সঙ্গে আরও একটা জিনিস ছিল যে ভোট পরবর্তী ক্ষেত্রে শুভেন্দু অধিকারী ও তার দলবল কেন্দ্রকে বোঝায় যে, বাংলার লোক আমাদের ভোট দেয়নি। টার্গেট ২০০ আসন বলা হয়েছিল, কিন্তু ৭৭এ থমকে গেছে। সুতরাং এদেরকে শাস্তি দিতে হবে। কিরকম শাস্তি! যেভাবে ইংরেজ ১৯৪৩ সালে দিয়েছিল। ৫০ লক্ষ বাঙ্গালীকে হত্যা করেছিল ইংরেজরা, সেইরকম নরেন্দ্র মোদি সরকার পয়সা বন্ধ করে বাংলায় গরিব মানুষকে শাস্তি দেবে। এটাই ছিল মূল উদ্দেশ্য। সেটাই ওরা করছে। তার বিরুদ্ধে তখন যারাই থাকুক না কেনো ১৯৪৩ সালে, এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আছেন, তিনি রুখে দাঁড়িয়েছেন।

বাংলাকে এইভাবে রোখা যাবে না, তার জন্য এই প্রতিবাদ ও অবস্থান কর্মসূচি। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আসছে। আজ এই অবস্থার সপ্তম দিন। এরই মধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন একুশে ফেব্রুয়ারি মধ্যে ২১ লক্ষ লোকের বকেয়া ১০০ দিনের টাকা, তিনি নিজে সরকারের ফান্ড থেকে দেবেন। বাংলা যে নতিস্বীকার করবে না তারই ঘোষণা। মনে রাখতে হবে একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলা ভাষা দিবস, বাংলা ভাষাকে স্বীকৃতির দিবস। সারা পৃথিবীতে ভাষা দিবস হিসেবে বাংলা ভাষার জন্য হয়। সেদিন ১০০ দিনের বকেয়া এই টাকা সমস্ত  তাদের ব্যাংকে যাবে যারা কেন্দ্রের বঞ্চনার শিকার। সুতরাং তারই জন্য আজ সপ্তম দিনে তৃণমূল কংগ্রেস ওবিসি সেল তৃণমূল কংগ্রেস সংখ্যালঘু ও এসএসটি সেল ধরণা মঞ্চে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন।


Follow us on :