১৫ এপ্রিল, ২০২৪

CBI: সন্দেশখালিকাণ্ডে শেখ শাহজাহানকে সকাল থেকেই সিবিআইয়ের জেরা, বয়ান নিতে ইডি কর্তাকে তলব
CN Webdesk      শেষ আপডেট: 2024-03-07 16:38:15   Share:   

৫ জানুয়ারি ইডির উপর হামলার ঘটনায় ন্যাজাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ইডি কর্তা গৌরব ভারিল। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করে ন্যাজাট থানা। এরপর সন্দেশখালিকে জুড়ে রাজ্য রাজনীতি দেখেছে একাধিক কাণ্ড ও ঘটনাপ্রবাহ। গ্রেফতার হয়েই তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত শাহজাহান। এবার ৫ জানুয়ারির মূল ঘটনার সূত্র ধরে সন্দেশখালির পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহের তদন্তে শাহজাহানকে জেরা করছে সিবিআই। এই মামলায় তদন্তে গতি রাখতে ইডি কর্তা গৌরব ভারিলকে তলব করে সিবিআই। তাঁর বয়ান নথিবদ্ধ করে আকুঞ্জিপাড়ার ঘটনার বিবরণ সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল হতে চাইছে। সিবিআই তলবে সাড়া দিতে ইডি কর্তা নিজাম প্যালেসে হাজিরও হয়েছেন।

যদিও সিআইডির হাতে তদন্তভার থাকাকালীন রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থার তলব এড়িয়েছেন গৌরব ভারিল। কোর্ট নির্দেশে সন্দেশখালি-কাণ্ডের তদন্তভার হাতে নিয়েই ন্যাজাট থানার পুলিসের করা স্বতঃপ্রণোদিত মামলার নথিপত্র, কেস ডায়েরি সংগ্রহ করেছে সিবিআই। সূত্রের খবর, মামলা সম্পর্কে প্রাথমিকভাবে ন্যাজাট থানার পুলিস অফিসারদের সঙ্গে কথা বলেছে। হেফাজতে পেয়েই বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঘণ্টা দুয়েক জেরা করা হয়েছে শাহজাহানকে। মূলত ৫ জানুয়ারির সকালের প্রেক্ষাপট নিয়ে বেশ কিছু বিষয় জানতে চাওয়া হয়েছে।

শাহজাহানকে জেরার পাশাপাশি সিবিআইয়ের তরফে বসিরহাট আদালতে জমা করা হলো এফআইআর কপি। যেহেতু কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ শেখ শাহজাহান সিবিআই হেফাজতে, তাই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দায়ের করা এফআইআর কপি ও আদালতের অর্ডার কপি জমা করা হয়েছে বসিরহাট আদালতে। কোর্ট নির্দেশ থাকলেও একদিন পর সিবিআইয়ের হাতে শেখ শাহজাহানকে তুলে দিয়েছে সিআইডি। তাদের এহেন অবস্থানের কারণ রীতিমতো প্রেস বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা। চলতি মাসের ১০ তারিখ ফের আদালতে হাজির করতে হবে শেখ শাহজাহানকে। এখন দেখার ফের তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত নেতাকে হেফাজতে পায় কিনা সিবিআই।


Follow us on :