আইপিএলে সুপার রবিবার, সুপার-ডবল সুপার ওভারেও গড়াল দুটি ম্যাচ

0

রবিবার আইপিএলে দুটি ম্যাচ ছিল। আর দুটি ম্যাচই হল টানটান উত্তেজনার। একই দিনে হল তিনটি সুপার ওভার। প্রথম ম্যাচে কলকাতা জিতল সুপার ওভারে। আর দ্বিতীয় ম্যাচ গড়াল ডবল সুপার ওভারে। যা আইপিএলের ইতিহাসে প্রথম তো বটেই এমনকি টি-২০ ম্যাচের ইতিহাসেও প্রথম। এর আগে একবার সুপার ওভারেও টাই হয়েছিল, কিন্তু সেবার বেশি বাউন্ডারি মারার জন্য একদলকে জিতিয়ে দেওয়া হয়। সেটা ছিল ২০১৪ সালের আইপিএল, আবু ধাবিতে ওই ম্যাচে মাঠে ছিল কেকেআর ও রাজস্থান রয়্যালস। সেবার বাউন্ডারি বেশি মারার কারনে রাজস্থানকে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল।

চলতি আইপিএলে রবিবার ছিল সত্যিই অনন্য। এদিন প্রথম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে কলকাতা তোলে ১৬৩ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে সানরাইজার্স হায়দরাবাদও করে ১৬৩ রান। ফলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। এবার প্রথমে ব্যাট করে হায়দরাবাদ, কিন্তু লাকি ফার্গুসনের আগুনে বোলিংয়ের সামনে তাঁরা দুই উইকেট হারিয়ে করে মাত্র ২ রান। যা কলকাতা অনায়াসে তুলে ম্যাচ জিতে নেয়। দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে বসে ছিল লাকি ফার্গুসন। এদিনই তাঁকে সুযোগ দেয় কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্ট। আর এই কিউই ফাস্ট বোলারই এদিন লাকি হয়ে দাঁড়াল নাইটদের কাছে। প্রথম ইনিংসে ৪ ওভারে তুলে নিলেন তিন উইকেট, আর সুপার ওভারে আরও দুই উইকেট। ম্যান অফ দি ম্যাচও তিনি।
দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামে নেমেছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। এই ম্যাচও গড়ায় সুপার ওভারে। তবে শেষ পর্যন্ত সুপার ওভারেও টাই হলে দ্বিতীয় সুপার ওভার হল। শেষ পর্যন্ত পাঞ্জাব জিতল। প্রথম নির্ধারিত ২০ ওভারে দুদলই করে ১৭৬ রান করে। প্রথম সুপার ওভারে প্রথমে ব্যাট করে তোলে মাত্র ৬ রান। কিন্তু মুম্বই দলও আটকে যায় ৬ রানে। দ্বিতীয় সুপার ওভারে মুম্বই তোলে ১১ রান। যদিও শেষ সুপার ওভারে মুম্বই আরও পাঁচ রান জুড়তেই পারত। কিন্তু শেষ বলে সুপারম্যান হয়ে নিশ্চিত ছয় বাঁচিয়ে দেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। ফলে ১১ রানেই থামে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। যা দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৪ বলেই তুলে দেন ক্রিস গেইল ও মায়াঙ্ক আগরওয়াল।