ব্রেকিং নিউজ
  মহালয়ার আগে কাটছে নিম্নচাপ দক্ষিণবঙ্গে, উত্তরবঙ্গের ৫ জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা     অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ীকরণের দাবীতে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার বাঁকুড়া ডিপো ঘেরাও করে বিক্ষোভ     কুড়মিদের রেল অবরোধ আজ পঞ্চম দিন, পুরুলিয়া কুস্তাউর রেল স্টেশনে রেল ট্রাক এ বসে আন্দোলনকারীরা      ক্যানিংয়ে গাছ কাটার প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত বৃদ্ধ দম্পতি     রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বারাসাতে এক বেসরকারি হাসপাতালে, মৃতদেহ ফেলে রেখে বিক্ষোভ পরিবারের  
The-color-of-the-river-water-is-orange-Somewhere-a-little-brown-but-you-know-why
River: নদীর জলের রং কমলা, কোথাও সামান্য বাদামি! কিন্তু কেন জানলে অবাক হবেন

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2022-05-25 13:16:53


জলের কোনও রং আছে কি? নেই তো। কিন্তু এখানে নদীর জলের রং কমলা। পূর্ব স্লোভাকিয়ার স্লানা নদীর জল কমলা রঙের। অবাক হচ্ছেন তো? না, এটাই সত্যি। কিন্তু কেন?

চারদিকে সবুজের সমাহার। পাহাড়কে ঘিরে রেখেছে জঙ্গল। তার মাঝখান দিয়েই বয়ে চলেছে স্লানা নদী। নদী বহমান কমলা রঙে। নদীর জলের রং কমলা হওয়ায় আতঙ্কিত পূর্ব স্লোভাকিয়ার বাসিন্দারা।

কারণ অনুসন্ধানে জানা গেল, বিগত কয়েক বছর ধরে নিজনা স্লানা নামে লৌহ আকরিক খনি থেকে জল বেরিয়ে মিশছে স্লানা নদীতে। দূষণের প্রভাবে জলজ এবং বন্যপ্রাণীদের মৃত্যুমিছিল লেগেই আছে। নদীটি হাঙ্গেরিতে সাজো নামে প্রবাহিত। নদীর দূষণে জলজ এবং বন্যপ্রাণী সম্পদের ওপর কুপ্রভাব ফেলেছে। মৃত্যু হচ্ছে মাছ, বনে থাকা জীবজন্তুর। টিবোর ভার্গ নামে স্থানীয় একজন শল্য চিকিৎসক, একাধারে মৎস্যজীবীও, ফেব্রুয়ারিতে দূষণ শুরু হওয়ার পর থেকে নদীটি পর্যবেক্ষণ করছেন। তিনি বলেন, খনি থেকে নির্গত জল নদীতে মেশায় লোহার পরিমাণ ২২ গুণ বেড়ে গিয়েছে। লোহার ঘনত্ব এতটাই বেশি যে মাছের ফুলকাকে ঢেকে দিচ্ছে। ফলে মাছগুলি শ্বাস নিতে না পেরে দম বন্ধ হয়ে মারা যাচ্ছে। মাছের ফুলকোগুলোর মধ্যে আয়রন-অক্সাইডের চিহ্ন মিলেছে। তিন মাস ধরে মাছের মড়ক লেগেছে। সম্প্রতি নদীর জলের একটু গভীরে গেলেই মিলছে শুধু জিঙ্ক এবং আয়রনের স্তর।

স্থানীয় বাসিন্দারা অদূর ভবিষ্যতের কথা ভেবে ভয় পাচ্ছেন। সম্প্রতি এই নিয়ে হাঙ্গেরির পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখেন হাঙ্গেরির সেক্রেটরি বালাজ অরবান। নদীটিকে সুস্থ করে তুলতে তিনি স্লোভাকিয়া এবং হাঙ্গেরিয়ান সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, নিজনা স্লানা লোহার খনির সাব-স্টোরেজ থেকে দূষিত জল কোনও ট্রিটমেন্ট ছাড়াই সাজো নদীতে পড়ছে। এটা নদীর স্লোভাক অংশে গুরুতরভাবে পরিবেশের ক্ষতি করছে।

তবে হাঙ্গেরিয়ান ওয়াটার অথরিটি সাজো নদী থেকে নিয়মিত জলের নমুনা সংগ্রহ করছে। নদীটি হাঙ্গেরির অংশে মাঝেমধ্যে 'সামান্য বাদামি' রূপ নিয়েছে। এখন নদী তার স্বাভাবিক রং কবে ফিরে পায়, তা বলবে সময়।






All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us

এই সংক্রান্ত আরও পড়ুন