এখন সর্দি কাশি হলে কী করবেন?

0
1961

ঋতুবদলের এই সময়ে সর্দি-কাশি দেখাদেওয়া স্বাভাবিক বিষয়। কিন্তু এই করোনা আবহে এটাই ত্রাসের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে সর্দি-কাশি হলেই যে আপনি করোনা আক্রান্ত সেটা নয়। কিন্তু এই লকডাউন ও করোনা আতঙ্কে হাসপাতালে যাওয়া বা ডাক্তারের সন্ধান পাওয়া নিয়ে সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অনুসরণ করে সুস্থ হতে পারেন। যেনে নিন কিভাবে এই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবেন।

  • নিয়মিত গরম জল খান। এতে কাশি খুব তাড়াতাড়ি কমে যায়। দিনে তিনবার গরম জল খান। গলাব্যথা না থাকলেও নিয়মিত গরম জলে একটু নুন মিশিয়ে কুলকুচি করুন।
  • আধ চামচ পেঁয়াজের রসে ছোট চামচের ১ চামচ মধু মিশিয়ে দিনে দু’বার করে খান।
  • আদা মিশিয়ে দিনে তিনবার চা খান। আদায় থাকা অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি গুণ যেকোন ধরনের সংক্রমণ কমাতে সাহায্য করে।
  • মধু শুকনো কাশির মহৌষধ হিসেবে কাজ করে। এক চামচ মধুর সঙ্গে আদার রস মিশিয়ে দিনে একবার করে খান। এতে উপকার পাবেন।
  • তুলসি পাতার রস করে তাতে মধু আর আদার রস মিশিয়ে দিনে দু’বার করে খান। সর্দি-কাশি নিরাময় হবে।
  • গরম জলের ভাপ নিলে সর্দি-কাশি নিরাময়ে উপকার পাওয়া যায়।। দিনের যে কোনও সময় এটা করতে পারেন।
  • যষ্টিমধুও শুকনো কাশি প্রতিরোধ করে। ২ বড় চামচ যষ্টিমধুর শুকনো মূল একটি মগে রেখে তাতে গরম জল ঢালুন। দিনে দু’বার ভাপ নিন ১০-১৫ মিনিট করে।
  • ঘিয়ে গোলমরিচের গুঁড়ো ভেজে নিন। তারপর খেয়ে ফেলুন। এতে খুব তাড়াতাড়ি সেরে যায় সর্দি-কাশি।
    এক গ্লাস দুধে আধ চামচ হলুদ মিশিয়ে রোজ খান। এতে আরাম পাবেন।
  • এক কাপ জলে ২-৩ কোয়া রসুন ফেলে গরম করুন। একটু ঠান্ডা করে মধু মিশিয়ে খেয়ে ফেলুন।

এছাড়া ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার বেশ করে খান। এতে সর্দি-কাশির সঙ্গে লড়াই করার শক্তি বাড়বে। সাধারণ কাশি ঘরোয়া জিনিসপত্র, ঠিকমতো খাওয়াদাওয়া করলে ৮-১০ দিনে সেরে যায়। কিন্তু ২-৩ সপ্তাহেও কাশি না সারলে রোগ জটিল হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তখন অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।