শেরওয়ানী গায়ে, ছাতা মাথায়, ৪ কিমি বরফ ডিঙিয়ে পায়ে হেঁটেই বিয়ে করতে গেল হুবু বর

0
1538

যতদূর দেখা যায় ধু ধু করছে সাদা বরফ। সেইসঙ্গে কলকনে ঠান্ডায় হাড় জমে যাওয়ার অবস্থা। এই রকম আবহাওয়ায় বিয়ে? হ্যাঁ উত্তরাখণ্ডের এক বরের কীর্তি এখন ইন্টারনেটের অন্তর্জালে রীতিমতো ভাইরাল। জানুয়ারির শেষে এসেও হিমাচলের বিস্তৃর্ণ অঞ্চলে তুষারপাত অব্যহত। একই অবস্থা উত্তরাখণ্ডেও। বিয়ের দিন সকাল থেকেই চলছিল ঝিরঝিরে তুষারপাত। ফলে রাস্তাঘাটে বন্ধ হয়ে যায় গাড়ি চলাচল। তাই বরের বাড়ির লোকের মাথায় হাত। কিভাবে পৌঁছাবে বর? এই চিন্তায় কপালে ভাঁজ কনে পক্ষের লোকেদেরও। কিন্তু বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যে কোনও বাঁধাই কম নয়, সেটা ফের প্রমান করলেন উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলার বিরজা গ্রামের ওই বর। ভারী তুষারপাতের মধ্যেই তিনি ঠিক করে ফেললেন নিজের কর্তব্য।

ভারী তুষারপাতের মধ্যেই বর ও বরযাত্রীদের ট্রেকিং..

পায়ে হেঁটেই বরফ ডিঙিয়ে চললেন ৪ কিমি দূরে হুবু কনের বাড়ি। তাঁর সঙ্গে বরযাত্রীরাও হাঁটা লাগালেন। এই ভিডিও বরের বন্ধুরা আপলোড করে দেয় সোশাল মিডিয়ায়। বরের এই সিদ্ধান্ত নি:সন্দেহে প্রশংসনীয়। ফলে কুর্ণীশ জানাতে ভোলেনি নেটিজেনরা। শেরওয়ানী পরে হুবু বর একহাঁটু বরফ ভেঙে পায়ে হেঁটেই চলেছেন বিয়ে করতে, এই বিরল দৃশ্য দেখে অবাক নেটিজেনরা। বেশিরভাগ লোকই ওই যুবককে অত্যন্ত রোমান্টিক বর বলেই আখ্যা দিয়েছেন। শেরওয়ানী পড়ে বরফ ভেঙে ৪ কিমি যাওয়ার মাঝেও তাঁর মুখ থেকে হাসি সরেনি একফোঁটা। নানা বাঁধা পেড়িয়ে প্রেমিক-প্রেমিকার মিলনের দৃশ্য একমাত্র সিনেমাতেই দেখা যায় তা নয়। কঠিন বাস্তবেও এরকম কিছু ঘটনা ঘটে আমাদের সমাজে। উত্তরাখণ্ডের এই বরের কীর্তি ফের একবার প্রমান করল সেই কথা।

হাসি মুখেই বিয়ে করতে চলেছেন বর…