পঞ্চমীর দুপুরেই নিজের তিন মেয়েকে দামোদরে ভাসালো বাবা

0

চারিদিকে মাতৃশক্তির আরাধনার প্রস্তুতি চলছে। আগামীকালই দেবীর বোধন। এর আগে পঞ্চমীর দুপুরেই নিজের তিন মেয়েকে নদীতে ভাসিয়ে দিল বাবা। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোলের কাছে কুলটি থানার চিনাকুড়ি এলাকায়। দামোদর নদের চড়ে নিয়ে গিয়ে তিন মেয়েকে জলে ভাসিয়ে দেয় অভিযুক্ত বাবা। যদিও স্থানীয় এক ব্যক্তির প্রচেষ্টায় একজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তবু দুটি শিশু এখনও নিখোঁজ, তাঁদের খোঁজে দামোদরে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর জওয়ানরা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে তিন মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে মিথিলেশ কুমার ঠাকুর নামে এক ব্যক্তি দামোদরের চরে যায়। সেখানেই একে একে তিন মেয়েকে জলে ভাসিয়ে দেন তিনি।

সেটা দেখতে পেয়েই স্থানীয় কয়েকজন জলে ঝাঁপিয়ে একটি মেয়েকে উদ্ধার করতে পারলেও বাকি দুজনকে পারেননি। এরপরই ওই ব্যক্তিকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয়রা। জানা গিয়েছে, বছর বারোর বড় মেয়েকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও ছোট দুই মেয়েকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। বাকি দুই মেয়ের বয়স আট বছর ও দেড় বছর। জানা গিয়েছে মিথিলেশ কুমার ঠাকুরের দুটি বিয়ে। প্রথম পক্ষের স্ত্রীর মৃত্যুর পর ফের বিয়ে করেন তিনি। প্রথম পক্ষের দুই মেয়ে এবং দ্বিতীয় পক্ষের একমেয়ে তাঁর। তবে ঠিক কী কারণে তিনি তিন মেয়েকে দামোদরের জলে ভাসিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন সেটা জানা যায়নি। পুলিশ মিথিলেশকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এই ঘটনার পর দামোদরে চলছে উদ্ধার কাজ।