সুকনায় নবরাত্রিতে ‘শস্ত্র পুজো’ করলেন রাজনাথ

0

দুর্গাপুজোর মধ্যেই বাংলা ও সিকিম সফরে এসেছেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি সেনা জওয়ানদের সঙ্গেই দশেরা উৎসব পালন করবেন এক্কেবারে শত্রুপক্ষের নাগের ডগায়। অর্থাৎ সিকিমে ভারত-চিন সীমান্তের একেবারে কাছে। এর আগে তিনি নবরাত্রিতে বিধি মেনে ‘শস্ত্র পুজো’ সারলেন শিলিগুড়ির সুকনা ওয়ার মেমোরিয়ালে। পাশাপাশি উদ্বোধন করলেন বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন (BRO)-এর তত্ত্বাবধানে থাকা বিকল্প এলাইনমেন্ট গ্যাংটক-নাথুলা রোডের। রাজনাথ সিংয়ের এই সফর যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা। কারণ চিনের সঙ্গে এই সংঘাতের আবহে তিনি সেনা জওয়ানদের মনোবল বাড়ানোর জন্য একের পর এক সফর করছেন।

এর আগে লাদাখের রাজধানী লে-তে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। এদিন সুকনা ওয়ার মেমোরিয়ালে (Sukna War Memorial)। তাঁর সঙ্গে ছিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাবনে। আর চিন সীমান্তের খুব কাছেই এই ওয়ার মেমোরিয়ালে ‘শস্ত্র পুজো’ করলেন তিনি। পরে বলেন, ‘ভারতের সাহসী যোদ্ধারা তাঁদের জীবন উৎসর্গ করে চলেছেন। আমরা চাই, ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনা শেষ হোক এবং শান্তি প্রতিষ্ঠিত হোক। কিন্তু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেই চলেছে। তবে আমি আত্মবিশ্বাসী, আমাদের সেনা কাউকে আমাদের ভূমির এক ইঞ্চিও দখল করতে দেবে না। ইতিহাস মনে রাখবে ভারতীয় সেনার সাহসকে’।

দুদিনের সফরে তিনি দার্জিলিং জেলার সুকনায় সেনাঘাঁটি পরিদর্শন করেন। সেনাবাহিনীর প্রস্তুতিও খতিয়ে দেখেন রাজনাথ সিং। ৩৩ কোরের জওয়ানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন, পরে করেন শস্ত্র পুজো। রবিবার তিনি সিকিমে থাকবেন। এবং চিন সীমান্তের কাছেই কয়েকটি অঞ্চল পরিবদর্শন করবেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। দশেরা উৎসব পালন করবেন কর্তব্যরত সেনাবাহিনীর জওয়ানদের সঙ্গে।