রক্তদানে উৎসাহিত করতে মাইলের পর মাইল হাঁটা

মাইলের পর মাইল। তিনি হেঁটেই চলেছেন। মনে অদম্য জোর। আর লক্ষ্যে স্থির। রক্তের অভাবে মানুষকে যে কী অসহায় অবস্থায় পড়তে হয়, সেই মর্মান্তিক অভিজ্ঞতাও তাঁর কম হয়নি। বিশেষত করোনাকালে রক্তদান নিয়ে অনেকের মধ্যেই একটা ভয়ভীতি কাজ করে। তিনি নিজের এক আত্মীয়ের জন্য রক্ত জোগাড় করতে গিয়েও পদে পদে ধাক্কা খেয়েছেন। তখন থেকেই মনটা আকুলি বিকুলি করে উঠেছে। কীভাবে এই সংকটের মোকাবিলা করা যায়, তার জন্য ঘুম ছুটেছে রাতের। কিন্তু থেমে যায়নি তাঁর চিন্তা, থেমে যায়নি তাঁর জেদ। ২৪ বছরের ওই যুবক সকলকে রক্তদানে উৎসাহিত করতে গত এপ্রিলেই বেরিয়ে পড়েন নানা দেশে। পায়ে হেঁটেই ঘুরেছেন দূর-দূরান্তে। 

সবাই জানেন, রক্তদান মহৎ কাজ।  তবে আজকাল অনেকের মধ্যেই এ ব্যাপারে অনীহা জন্ম দেয় নতুন সংকটের। তা কাটাতেই এই অভিনব উদ্যোগ ওই যুবকের। 

কন্যাকুমারী থেকে যাত্রা শুরু হয়েছিল তাঁর। এরপর একে একে কেরল, অন্ধ্রপ্রদেশ সহ নানা জায়গায় ঘুরেছেন তিনি। এখনও পর্যন্ত কয়েক হাজার কিলোমিটার ঘোরা সম্পূর্ণ হয়েছে তাঁর। অন্ধ্রপ্রদেশ, কেরল, তামিলনাড়ু সরকার তাঁকে কুর্নিশ জানিয়ে তাঁর জন্য ই পাসেরও ব্যবস্থা করে দিয়েছে।  একটাই উদ্দেশ্য, রক্তদানে সাধারণ মানুষকে উৎসাহিত করা।  জানা যায়, এই যুবক দীর্ঘদিন ধরেই এই নিয়ে চিন্তাভাবনা করছিলেন। কিন্তু হঠাৎ তাঁর মাথায় আসে, শুধু ঘরে বসে এভাবে মানুষকে রক্তদানে অনুপ্রাণিত করা সম্ভব নয়। তাই বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে মানুষকে রক্তদানের ব্যাপারে উৎসাহিত করার পথে পা বাড়ান তিনি। মাঝে নিজেই হয়ে পড়েছিলেন করোনায় আক্রান্ত। কিন্তু তাতে কী। করোনামুক্ত হতেই ফের পথে। 

ওই যুবক ঘুরে ঘুরে একাধিক জায়গায় মানুষের সাথে কথা বলছেন। মানুষকে রক্তদানে উৎসাহিত করতে বারবার বোঝাচ্ছেন। তবে তাঁর এই অভিনব সফর যে প্রাথমিকভাবে সফল হয়েছে, তা বলাই বাহুল্য। এরপর ওই যুবক নিজেই একটি সংস্থা খোলেন। সেখানে বেশ কিছু মানুষ এসে রক্তদানও করেন। এই যুবকের অদম্য উৎসাহই কিন্তু মানুষকে টেনে আনছে রক্তদানের শিবিরে। মাইলের পর মাইল হেঁটে এভাবে অভিযান চালানো সত্যিই কল্পনার বাইরে, এমনটা ভেবে অনেকেই তাঁকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। 

....

2 days ago