কলকাতা
করোনা নিয়ে সচেতনতা মেডিক্যালে মাস্ক লাগিয়ে প্রবেশ বাধ্যতামূলক

কলকাতা  |  4 hours ago

করোনায় পকেটে টান বিক্রেতাদের হাতিবাগান, গড়িয়াহাটে ক্রেতা কম উল্টো ছবি নিউ মার্কেটে

কলকাতা  |  4 hours ago

জমজমাট রবিবারের বাজার, বালাই নেই করোনা সচেতনতার

কলকাতা  |  5 hours ago

ভোট প্রচারে ডাঃ অর্চনা মজুমদারের হয়ে প্রচারে ধর্মেন্দ্র প্রধান

কলকাতা  |  7 hours ago

তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে

কলকাতা  |  7 hours ago

তৃণমূলের হাতে আক্রান্ত বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে

কলকাতা  |  7 hours ago

নির্বাচনের পরদিনও অশান্ত দত্তাবাদ এলাকায় তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ

কলকাতা  |  8 hours ago

করোনার চোখরাঙানি নববর্ষেও বিধিনিষেধের ঘেরাটোপেই উদযাপন সচেতনতার ভিন্ন ছবি শহরজুড়ে

কলকাতা  |  4 days ago

কোথায় সচেতনতা? বাজারে মাস্ক ছাড়াই চলছে কেনাকাটা, বাস-অটোয় উধাও সামাজিক দূরত্ববিধি

কলকাতা  |  4 days ago

করোনায় বেলাগাম পরিস্থিতি রাজ্যে, এখনও সচেতন নন সাধারণ মানুষ

কলকাতা  |  4 days ago

অজন্তা-র নয়া আউটলেট যাদবপুরে করোনা সতর্কতায় ওয়াশেবল জুতো

কলকাতা  |  4 days ago

বরাহনগরে বিজেপি কর্মীদের মারধর রাস্তায় ফেলে পেটানো হল বিজেপি কর্মীকে

কলকাতা  |  4 days ago

রাজ্যে নতুন করোনা-আক্রান্ত ৪৮১৭, ভোটপ্রচার-জমায়েতে রাশ হাইকোর্টের

কলকাতা  |  5 days ago

রাস্তাঘাট বা দোকান-বাজারে ভিড়, মাস্ক,স্যানিটাইজার ব্যবহারে অনীহা

কলকাতা  |  5 days ago

বৃদ্ধার রহস্যমৃত্যু পর্ণশ্রীর নিরঞ্জন সেন পল্লিতে আতঙ্ক

কলকাতা  |  6 days ago

করোনায় উদ্বিগ্ন প্রশাসন, নবান্নে জরুরি বৈঠক, রাজ্যে এল আরও চার লক্ষ কোভিশিল্ড

কলকাতা  |  6 days ago

নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত প্রার্থীরা জয়া বচ্চনকে দেখতে উত্সাহী জনতা

কলকাতা  |  7 days ago

সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে পানিহাটিতে অমিত শাহের রোড শো

কলকাতা  |  7 days ago

পিকে-র মোদী-বন্দনা, অস্বস্তিতে তৃণমূলে

কলকাতা  |  a week ago

ধস নেমে জলের পাইপলাইনে ফাটল মাঝেরহাট নতুন ব্রিজের নিচেই ধস রাস্তায় জল, বন্ধ যান চলাচল

কলকাতা  |  a week ago

সর্বশেষ আপডেট
অনেকে পড়ছেন
কয়লা পাচারকাণ্ডঃ তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রর ভাইকে আসানসোল আদালতে আনা হল

দিল্লিতে ধৃত তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্রর ভাই বিকাশ মিশ্রকে এদিন ট্রানজিট রিমান্ডে কলকাতায় এনে আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতে হাজির করাল সিবিআই। সম্প্রতি তাঁকে দিল্লির বসন্ত বিহার থেকে গ্রেফতার করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট। তারপর থেকে তিহার জেলেই ছিলেন বিকাশ। শুক্রবার তাঁকে দিল্লি থেকে কলকাতায় নিয়ে আসে ইডি-র গোয়েন্দারা। সূত্রের খবর, বিকাশ মিশ্রকে কয়লা এবং গরু পাচারকাণ্ডে ইতিমধ্যেই জেরা করেছে সিবিআই। এই দুটি পাচার কাণ্ডের তদন্ত একযোগেই করছে সিবিআই এবং ইডি।


কয়লা পাচার কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালা। যদিও সুপ্রিম কোর্টের রক্ষাকবচ থাকায় তাঁকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। অপরদিকে লালার সহযোগী ব্যবসায়ী তথা তৃণমূল যুব নেতা বিকাশ মিশ্রকেও গ্রেফতার করতে পারেনি সিবিআই বা ইডি-র গোয়েন্দারা। কারণ এখনও পর্যন্ত বিকাশ মিশ্র ফেরার। তাঁর হদিশ পেতেই নিজেদের হেফাজতে নিয়েই বিনয়কে জেরা করতে চাইছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তকারীরা। সিবিআই‌ সূত্রে খবর, লালাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সন্তুষ্ট হতে পারছেন না কেন্দ্রীয় সংস্থার গোয়েন্দারা। কিন্তু লালা সুপ্রিম কোর্ট থেকে রক্ষাকবচ পেয়েছেন, আর তার মেয়াদও বারবার বাড়িয়ে নিয়েছেন। আগামী ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত সিবিআই তাঁকে গ্রেফতার করতে পারবে না।

....

3 days ago

ভিডিও খবর

Popular TV Programme

২৪-এ পা সিটিভিএন-এর

ষোল আনাই বাঙালিয়ানা স্লোগান নিয়ে এক বাঙালি উদ্যোগপতি খুলেছিলেন একটি বাংলা চ্যানেল সিটিভিএন একেডি। ৯০ দশকের শেষে চ্যানেল খোলার ইচ্ছা বা সাহস এ রাজ্যে কারও ছিল না। কারণ বাজারে তখন সরকারি প্রচারমাধ্যম এবং সাথে সর্বভারতীয় বিনোদন চ্যানেল তার সাথে মানুষের বাড়িতে ভিসিআর, যেখানে ক্যাসেট সেট করলেই টাটকা হিন্দি ছবি। ছোট্ট একটি ফ্ল্যাটবাড়িতে চলা শুরু তাও কেবলের মাধ্যমে। ছিল বাংলা গান, উত্তমকুমারের বাংলা ছবি, টলিউড থেকে বিভিন্ন মহলের সেলেবদের সাক্ষাৎকার। প্রথমে একঘন্টা, তারপর ৮ ঘন্টা এবং অবশেষে ২৪ ঘন্টার বাংলা অনুষ্ঠান।

একটা সময়ে শুরু হল বাংলা খবর, রাজনৈতিক অনুষ্ঠানও। প্রয়াত প্রণব মুখোপাধ্যায় থেকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য কিংবা স্টুডিওর বাইরে ভোটবাজার ধরতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে সুভাষ চক্রবর্তী থেকে কে নয়! ২০০৫-৬ সালে স্যাটেলাইটে এল সিটিভিএন একেডি প্লাস। শিক্ষা, ব্যবসা,রাজনীতি ইত্যাদি থেকে দূরাভাষে বাণিজ্য। টেলিভশন জগতে সিটিভিএনই প্রথম লাইভ ফোন অনুষ্ঠান শুরু করে। দর্শকরা ফোন করে কেনাকাটা থেকে শিক্ষাগ্রহণ  সবই চলতে থাকে সিটিভিএন একেডিতে। তারপর একে একে নতুন চ্যানেলের হাত ধরেই চলে এল টিভি বিশ্বে। উত্তরবাংলা, ক্যালকাটা নিউজ বা সিএন। আগামীতে আসছে সিএন রাষ্ট্রীয়। ভরা সংসার আজ একেডি গ্রূপের। আজ ১৫ ফেব্রুয়ারি ২৩ পূর্ণ করে ২৪-এ পা দিল ষোলোআনাই বাঙালিয়ানা সিটিভিএন একেডি।        


নবান্ন অভিযানে পুলিশের লাঠিতে বাম যুবনেতার মৃত্যুর অভিযোগ

নবান্ন অভিযানে অংশ নেওয়া সিপিএমের যুব সংগঠনের এক নেতার মৃত্যু ঘিরে বিতর্ক তৈরি হল। সোমবার সকালে শহরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে মৃত্যু হয়েছে ওই নেতা মইদুল ইসলাম মিদ্যার। বামেদের দাবি, ১১ ফেব্রুয়ারি নবান্ন অভিযানে পুলিশের লাঠির ঘায়ে গুরুতর আহত হয়ছিলেন তিনি। জানা গিয়েছে, পুলিশের মারে ৩১ বছরের মইদুলের শরীরের একাধিক মাংসপেশিতে গুরুতর আঘাত লাগে। পেটে, পিঠে গুরুতর আঘাত পান তিনি। তারই জেরে তাঁর কিডনি কাজ করা বন্ধ করে দেয়। জল জমে ফুসফুসে। এদিন সকাস সাতটা নাগাদ মারা যান বাঁকুড়ার কোতলপুরের  মইদুল। এই ঘটনা নিয়ে মানবাধিকার কমিশনে যাওয়ার কথাও বলেছেন বাম নেতারা। সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর কথায়, এটা খুন। বাচ্চা ছেলেটকে কীভাবে মেরেছে! সরকার ভয় পেয়েছে। সিপিএম নেতা ফুয়াদ হালিমের অভিযোগ, পুলিশ মাথা ও বুক লক্ষ্য করেই লাঠি চালিয়েছে। দেহে লাঠির দাগ রয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।  

এর আগে নবান্ন অভিযানে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পাঁশকুড়া বাহারপোতা গ্রামের এক বামপন্থী কর্মী। এখনওসন্ধান পাওয়া যায়নি তাঁর। গত বৃহস্পতিবার চাকরি, শিক্ষা-সহ একাধিক দাবিতে নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছিল ১০টি বাম ছাত্র-যুব সংগঠন। সেখানেই জলকামান, কাঁদানে গ্যাস, লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে পুলিশ। আহত হন বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারী ও পুলিশকর্মী। এস এন ব্যনার্জি রোডে পুলিশের লাঠিচার্জের প্রতিবাদ জানাতে মৌলালিতেও অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। সেখানেও লাঠি চালায় পুলিশ। পুলিশের এই হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার ১২ ঘণ্টার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল বামেরা।  


১০ দিনের মধ্যেই রান্নার গ্যাসের দাম বাড়ল ৫০ টাকা

মাত্র ১০ দিনের ফারাকে ফেব্রুয়ারিতে কলকাতায় রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম দ্বিতীয়বার বাড়ানো হল। রবিবার সরকারি তেল কোম্পানিগুলি রান্নার গ্যাসের নতুন দাম ঘোষণা করা হয়েছে। ১৪.২ কিলোর গার্হস্থ্য ভর্তুকিহীন এলপিজি সিলিন্ডারের দাম এক ধাক্কায় ৫০ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। কলকাতায় ভর্তুকিহীন এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ৭৪৫ টাকা ৫০ পয়সা থেকে তা বেড়ে হয়েছে ৭৯৫ টাকা ৫০ পয়সা। গত ৪ ফেব্রুয়ারি সিলিন্ডারের দাম ২৫ টাকা বাড়িয়েছিল রাষ্ট্রায়ত্ত তেল বিপণনকারী সংস্থাগুলি। চলতি মাসে এখনও পর্যন্ত মোট দাম বাড়ল ৭৫ টাকা। উল্লেখ্য, ডিসেম্বর মাসে দু’দফায় সিলিন্ডারের দাম মোট ১০০ টাকা বেড়েছিল। ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে নয়া দর কার্যকর হবে।

ভর্তুকি বাবদ গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে কত টাকা দেওয়া হবে, তা নিয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু জানায়নি রাষ্ট্রায়ত্ত তেল কোম্পানিগুলি। গত কয়েক মাস থেকে তেল কোম্পানিগুলি গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টে ভর্তুকির টাকা নিয়ে কোনও তথ্য জানাচ্ছে না। যদিও এই পর্যায়ে ১৯ কিলো ওজনের বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দাম ৯ টাকা ৫০ পয়সা হ্রাস করা হয়েছে। যার ফলে নতুন দাম হয়েছে ১,৫৮৯ টাকা। সোমবার থেকে রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম ৫০ টাকা বাড়ছে রাজধানী দিল্লিতেও। দিল্লিতে এলপিজি সিলিন্ডারের নতুন দাম দাঁড়াবে ৭৬৯ টাকা। জানা গিয়েছে, রান্নার গ্যাসের উপর থেকে ভর্তুকি ধাপে ধাপে তুলে দিতে চায় মোদী সরকার। ধীরে ধীরে রান্নার গ্যাসের দাম বাড়িয়ে ভর্তুকি তুলে দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

পার্শ্বশিক্ষকদের মঞ্চে শিক্ষামন্ত্রীকে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ

ধর্মতলায় পার্শ্বশিক্ষকদের বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ চলছিল। রবিবার তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে সেখানে যান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আর তাঁকে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ দেখালেন পার্শ্বশিক্ষকদের একাংশ। মুহুর্তে ওই মঞ্চে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখে কিছুক্ষণের মধ্যে মঞ্চ ছাড়েন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। যদিও এদিন পার্শ্বশিক্ষকদের অবস্থান মঞ্চে তাঁদের দাবিদাওয়া নিয়ে আশ্বস্ত করলেন শিক্ষামন্ত্রী। যদিও তাতে আশ্বস্ত হওয়ার বদলে একংশ পাল্টা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। বিশেষ করে মাদ্রাসা শিক্ষকরা তাঁদের বেতন বৃদ্ধির দাবিতে চিৎকার চেচামেচি করতে থাকেন। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এদিন বলেন, পার্শ্বশিক্ষকদের সমস্যা ধীরে ধীরে কমিয়ে আনা হবে। ধাপে ধাপে তাঁদের দাবিদাওয়া মেনে নেওয়া হবে।


মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে আপনাদের প্রতি সহানুভুতি আছে সেটা বহুবার প্রমানিত হয়েছে। যদিও তিনি আন্দোলনকারীদের একাংশকেও তোপ দাগলেন। বললেন, যারা সল্টলেকে বসে আছেন তাঁরা ওটাকে রাজনৈতিক মঞ্চ হিসাবে তৈরি করেছেন, দাবি দাওয়া নিয়ে কিছু বলছেন না। এরপরই তিনি ঘোষণা করলেন, পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষক সমন্বয় কমিটিকে তৃণমূল কংগ্রেসের অন্তর্ভুক্ত করা হল। মঞ্চ থেকেই তিনি বলেন, অন্তবর্তীকালনীন বাজেটে মুখ্যমন্ত্রী পার্শ্বশিক্ষকদের দাবিদাওয়া নিয়ে যা ঘোষণা করেছিলেন, অর্থ দফতর তার অনুমোদন করেছে। অর্থাৎ বার্ষিক ৩ শতাংশ হারে ভাতা বৃদ্ধি এবং অবসরকালীন ৩ লাখ টাকা এক্সগ্রাসিয়া।