লাইফস্টাইল
সর্বশেষ আপডেট
অনেকে পড়ছেন
প্যারাডাইস সন্দেশ

ব্রিটিশ যুগ থেকে এই সেদিনও বাঙালির প্রিয় মিষ্টি বলতে ছিল প্যারাডাইস সন্দেশ। যা কিনা আভিজাত্যের ঐতিহ্য হিসেবেই পরিচিত ছিল। কবে আবিষ্কার হয়েছিল বা কে করেছিল তা নিয়ে বিস্তর তর্ক হাতে পারে। কিন্তু এর স্বাদের সত্যিই বিকল্প কোনও নেই। শোনা যায়, কলকাতার এক তথাকথিত রায়বাহাদুরের বাড়িতে আমন্ত্রণ ছিল তৎকালীন বাংলার বড়লাটের। খাওয়ার বিষয়ে সাহেবের বক্তব্য ছিল যে তিনি ‘ইন্ডিয়ান খানা’ খাবেন। সে তো গেলো প্রাথমিক বিষয়। সাহেবের জন্য মুরগি-মাটন, গোল রুটি ছিল, কিন্তু ভারতীয় মিষ্টির কি হবে? তখন রায়বাহাদুর নিজেই গেলেন বিখ্যাত এক মিষ্টির দোকানে, তাঁদের মিষ্টির ফরমায়েশ দিলেন। সব শুনে ওই দোকানের মালিক রায়বাহাদুরকে বললেন ঘাবড়াবেন না, আমি বিষয়টি দেখছি।


এরপর ছানার কাঁচাগোল্লার সাথে কাজু, পেস্তা,খোয়া ক্ষীর ইত্যাদি দিয়ে বেশ বড় মাপেন একটি সন্দেশ তৈরী করে দিলেন। সাথে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছিল কেকের ভ্যানিলা। অসাধারণ স্বাদ হয়েছিল সেই সন্দেশের, সাহেব তো খেয়ে খুব খুশি। তিনি রায়বাহাদুরকে মিস্টিটির তারিফ করে বলেছিলেন, ‘ওহ ইটস প্যারাডাইস’। পরে সেটাই প্রচলিত হয়ে গেল, বাজারে চলে এল নতুন সন্দেশ ‘প্যারাডাইস সন্দেস’। আজও পাওয়া যেতে পারে হয়তো এই বিশেষ সন্দেশ। কিন্তু এক পিসের দাম ৭০ থেকে ৭৫ টাকা .... কে খাবে ?  

....

a week ago

ভিডিও খবর

Popular TV Programme

শরীর পরীক্ষা করান শ্বাসকষ্টে

আজ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় মস্ত শিক্ষা দিলেন আম নাগরিককে। শীতকালে আমাদের খাওয় দাওয়া একটু বেশিই হয় তার সাথে ফুলকপি গুড়ের মিষ্টি ইত্যাদি। একটা বয়সের পর সবাইকে সতর্ক হতে হয়। ৪০ বছর হয়ে গেলেই আসতে পারে প্রেসার, সুগার কিংবা হার্টের সমস্যা। শীতের সময়ে বেশিই হয়ে থাকে কারণ গরম পোশাকে ঢাকা থাকে শরীর এবং লেপ বা কম্বল তো রাতে লাগেই।

চিকিৎসকরা বলেন, এ সময়ে হাঁটাচলা করতে বিশেষ করে যাদের শরীর ভারী আবার ভুঁড়ির সমস্যা রয়েছে তাদের খাওয়ার পর সময় নিয়ে শুতে যাওয়া উচিত। কিন্তু শ্বাসকষ্ট হলেই আমরা ভাবি কপি বা গুড় খেয়ে গ্যাস হয়েছে চট করে অ্যান্টাসিড খেয়ে ফেলা হয় ওর পরেও বুকব্যথা ইত্যাদি হওয়ার পর জানা যায় সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছে। সৌরভের চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, শরীরে অস্বস্তি হওয়ার সাথে সাথেই তিনি হাসপাতালে চলে এসেছিলেন, যার জন্য চিকিৎসা সঠিকভাবে হয়েছে এর নাম গোল্ডেন পিরিয়ড ট্রিটমেন্ট কাজেই শ্বাসকষ্ট বা বুকে চিনচিনে ব্যাথা হলেই ডাক্তার দেখান।

টম অ্যান্ড জেরি ফিরে আসছে

বহুদিন ধরে গৃহবন্দি শিশুরা, সময়ে কাটে তাদের বাবা মায়ের মোবাইল ঘেঁটে যদি কিছু শিশুসুলভ কার্টুন পাওয়া যায়। কিন্তু ফল হয়েছে উল্টো, শিশুরা এখন মোবাইল অ্যাপস খুঁজে বার করছে বড়দের অনুষ্ঠান কিংবা বাংলাদেশের চটুল সংলাপের সিরিয়াল। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, করোনা আবহে এইসব দেখে খুবই খারাপ প্রতিক্রিয়া হচ্ছে বাচ্চাদের অন্যদিকে নির্লিপ্ত বাপমায়েরা। বাড়ির বড়রা টেলিভিশন শোয়ে খবর কিংবা এই বাংলার সিরিয়াল দেখছে, শিশুদের তা ভালো লাগবে কেন? সুতরাং তাদের দুষ্টুমি আটকাতে হাতে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে মোবাইল ফোন |
সম্প্রতি মার্কিন টিভি সংস্থাগুলি ফের নিয়ে আসছে টম অ্যান্ড জেরি, লরেল হার্ডি, চার্লস চাপলিনের সিনেমা ইত্যাদি। তাদের দেশে সমীক্ষা করে দেখা গিয়েছে শিশুরা সেক্স সম্বন্ধে উৎসাহী হয়ে পড়ছে আর পাশাপাশি মোবাইল অ্যাপগুলিতে সেন্সরের কোনও ব্যবস্থা নেই। এবারে ২০২১ থেকে যদি শিশুদের জন্য মজার কিছু শো চালু করা হয় তবে উপকৃত হবে এ দেশের শিশুরাও |        

নিউ ইয়ার্স ইভ উপলক্ষে গুগলের ডুডল কনফেটি

২০২০ সালের বিদায়ের বাকি আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। ঘড়ির কাঁটা রাত ১২ টা ছুঁলেই নতুন বছর ২০২১কে স্বাগত জানাবে বিশ্ববাসী। আর বছরের এই শেষদিন নিউ ইয়ার্স ইভ উপলক্ষে গুগল বানিয়েছে একটি বিশেষ ডুডল (Doodle)। বিশেষ বিশেষ দিনে গুগল ডুডল দেখতে অপেক্ষা করেন ব্যবহারকারীরা। আর ২০২০-র শেষ ডুডল নিরাশ করেনি তাঁদের।