আন্তর্জাতিক
সর্বশেষ আপডেট
অনেকে পড়ছেন
চোদ্দো-র কিশোরীকে বিয়ে করে বিতর্কে পাকিস্তানের ষাটোর্ধ্ব সাংসদ

চোদ্দ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ে করলেন পাকিস্তানের বছর ষাটেকের এক সাংসদ। অভিযোগ আনলেন পাকিস্তানেরই এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। ঘটনা জানাজানি হতেই প্রবল সমালোচনার ঝড় উঠেছে বিশ্বজুড়েই। যদিও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পাকিস্তানের পুলিশ বিভাগ। জানা যাচ্ছে, পাক বালোচিস্তানের ‘জামিয়তে উলেমা-এ-ইসলাম’ নামে এক সংগঠনের নেতা মৌলানা সালাহউদ্দিন আউয়ুবি এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। তিনিই চিত্রল এলাকার এক চোদ্দো বছরের এক নাবালিকাকে বিয়ে করেছেন। উল্লেখ্য, পাকিস্তানে মেয়েদের বিয়ের বৈধ বয়স ষোলো। সেইমতো ওই নাবালিকার বিয়ের বয়স না হওয়ায় ওই পাক সাংসদ বিপাকে পড়েন।

বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করায় পাকিস্তান জুড়ে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে। বয়সে চার গুণ বড় ওই সাংসদের সঙ্গে কিশোরীর বিয়ের খবর ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে। ফলে নেটিজেনরাও এর নিন্দায় সরব হন। পাক সংবাদ পত্র ‘ডন’ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্কুলের রেজিস্টার অনুযায়ী ওই কিশোরীর জন্ম ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর। সেখান থেকেই পরিষ্কার হয়ে যায় বৈধ বয়সের আগেই বিয়ে হয়েছে ওই নাবালিকার। ওই প্রতিবেদনে আরও লেখা হয়েছে, কিশোরীটির বাবা-মা স্বীকার করে নিয়েছেন যে তাঁদের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। কিন্তু বৈধ বয়স না হওয়ায় আপাতত তাঁরা মেয়েকে শ্বশুরবাড়ি পাঠাবেন না। যদিও পুরো বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন ওই পাকিস্তানের ওই সাংসদ মৌলানা সালাহউদ্দিন আউয়ুবি এবং প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

....

34 minutes ago

ভিডিও খবর

Popular TV Programme

সীমান্তে ফের আধুনিক অস্ত্রশস্ত্র ও রসদ পাঠানোর নির্দেশ দিলেন চিনা প্রেসিডেন্ট

লাদাখ সীমান্তে সমস্যা সমাধানের জন্য যেমন চিন একদিকে দফায় দফায় আলোচনা চালাচ্ছে, তেমনই অন্যদিকে সীমান্তে শক্তিবৃদ্ধি করছে চিন। সূত্রের খবর, চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং সেদেশের সৈনবাহিনীকে (লালফৌজ) যে কোনও সংঘর্ষের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি লাদাখ সহ ভারত সীমান্তে নতুন করে বেশিমাত্রায় অস্ত্রশস্ত্র পাঠাচ্ছে চিন প্রশাসন। বিভিন্ন চিনা মিডিয়া এবং সরকারি সূত্র থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, সীমান্ত এলাকায় লাল ফৌজের রসদের যোগান দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে চিনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনকে। এটা কার্যত যুদ্ধ প্রস্তুতির সামিল বলেই মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা। কারণ এই সামরিক কমিশনের প্রধান সয়ং চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং। চিনা প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, বসন্ত উৎসবের সময় সেনা বাহিনীকে প্রস্তুত থাকতে হবে জাতীয় সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য যাতে শান্তি বজায় থাকে। প্রসঙ্গত, এই সময় বহু মানুষ ছুটি নিয়ে নিজেদের বাড়িতে ফেরেন। তাই বাহিনীকে সতর্ক থাকতে হবে।


চিনা সরকারি মিডিয়ায় প্রকাশিত খবর অনুযায়ী সম্প্রতি চিনের লাল ফৌজের জন্য বিশেষ হাউইৎজার মিশাইল, ভারী ও হালকা ট্যাঙ্ক পাঠানো হয়েছে। যার বেশিরভাগই ভারত সীমান্তে চিনা বাহিনীর জন্য। পাশাপাশি সেখানে থাকা চিনা বাহিনীর জন্যও বিপুল পরিমান খাদ্য, পোশাক ও রসদ পৌঁছানোর কাজ শুরু করেছে চিন প্রশাসন। তবে কি যুদ্ধের জিগির ফের তুলতে চলেছে চিন? আশঙ্কায় ওয়াকিবহাল মহল।

ভ্যাকসিন নিতে অরাজি রাশিয়ানদের আইসক্রিমের টোপ

"স্পুটনিক ভি" নামে করোনা ভ্যাকসিন এসে গিয়েছে রাশিয়ায় এবং প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নিজে দেশবাসীকে ভ্যাকসিন নিতে অনুরোধ করেছেন। পুতিন দেশের প্রচারমাধ্যমে অনুরোধ করেছেন দেশের মানুষকে, কোনও ভয়ের কারণ নেই, সবাই ভ্যাকসিন নিন। তাঁর আবেদন দেশের সর্বত্র পৌঁছেছে কিন্তু তবুও দেশের নাগরিকদের বৃহত্তর অংশ ইনজেকশন নিতে ভয় পাচ্ছেন এবং এলাকায় ভ্যাকসিন এলেও চিকিৎসালয়ের ধরে কাছে যাচ্ছেন না।
জানা গিয়েছে, ভ্যাকসিনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কী হতে পারে তাই নিয়েই আতঙ্কিত রাশিয়ানরা। তাদের কাছে নাকি এমন সংবাদ রয়েছে যে ভ্যাকসিন নিলে মানুষ অসুস্থ এমনকী মৃত্যুও হতে পারে। এবারে আইসক্রিমের লোভ দেখানো হচ্ছে, বলা হচ্ছে ভ্যাকসিন নিলে প্রত্যেককে ফ্রি আইসক্রিম দেওয়া হবে। ব্যাপারটা অনেকটা শিশু ভোলানোর মতো হলেও রাশিয়ানরা আইসক্রিম খেতে ভীষণ ভালোবাসেন। তাই এই টোপ। জানা গিয়েছে, প্রত্যেকদিন ৬০ হাজার নাগরিককে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

সেনা অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিশাল বিক্ষোভ মায়ানমারে

নির্বাচিত গণতান্ত্রিক সরকারকে হটিয়ে দেশে সামরিক শাসন জারি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভে ফেটে পড়ছেন মায়ানমারের সাধারণ মানুষ। সোমবার রাজধানী নে পি তাওয়ে বিশাল বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান ব্যবহার কা হয়। দেশের শ্রমিকরা দেশজুড়ে ধর্মঘটে নেমেছেন। এই নিয়ে টানা তিনদিন রাস্তায় রাস্তায় বিক্ষোভ চলছে। তাঁরা নেত্রী আং সান সু চি-র মুক্তির দাবি করছেন। দেশের সরকারি টিভি চ্যানেলে বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে কড়া সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে। এক দশকে মায়ানমার এত বড় প্রতিবাদ দেখেনি।
 গত সপ্তাহে নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগে সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করেছে। একবছরের জন্য দেশে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে। শাসন ক্ষমতা এখন সেনাপ্রধান মিন আং হ্লেইয়ের হাতে। সু চি সহ বিরোধী নেতানেত্রীদের গৃহবন্দি করা হয়েছে। রবিবারের পর সোমবারও মান্দালয়, ইয়াঙ্গন থেকে লাখ লাখ লোক রাজধানীতে জড়ো হন। বিক্ষোভকারীদের মধ্যে রয়েছেন শিক্ষক, আইনজীবী, ব্যাঙ্ককর্মী ও সরকারি কর্মচারীরা। কয়েকজন আহত হওয়ার খবর এলেও হিংসার কোনও খবর নেই।

কোভিডে লাভবান ব্যবসায়ীদের ওপর ট্যাক্স চাপাল ব্রিটেন

করোনা আবহে বিশ্বের প্রচুর ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আবার উল্টো ঘটনাও ঘটেছে অনেক ব্যবসায়ীর ক্ষেত্রে। ব্রিটিশ সরকার করোনাকালে ধনবৃদ্ধির ব্যবসায়ীদের উপর অতিরিক্ত কর বসাল। তাদের সরকার পরিষ্কার জানিয়েছে, বেশকিছু ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হলে কোনও না কোনও ব্যবসায়ী লাভবান হবেন। কাজেই যারা এই কঠিন সময়ে অতিরিক্ত লাভবান হয়েছে তাদের উপর বিশেষ ট্যাক্স বসানো হল। এই ঘটনা দেখে প্রশ্ন উঠেছে আমাদের দেশেও। প্রশ্ন এসেছে, দেশের এক শ্রেণীর অতি ধনবানরাও কোভিড কালে কোটি কোটি টাকা লাভ করেছে। তবে কেন অর্থমন্ত্রী তাঁদের কেন উপর বিশেষ কর বসবেন না?

আমাদের দেশে অর্থনীতির বিশেষজ্ঞদের একাংশের মত, ব্রিটেনের মতো আমাদের দেশে এক শ্রেণীর 'বিশেষ ধানবান' আছেন যাঁরা করোনা আবহে নিজেদের ব্যবসার ফায়দা তুলে কোটি টাকা লাভ করেছেন এবং তাঁরা যুক্তি দেন আন্তর্জাতিক মানবধিকার সংগঠন 'অক্সফ্যাম'এর সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের। সংস্থাটি জানাচ্ছে, দেশের অতি ধনীরা করোনা আবহে তাঁদের সম্পদ বাড়িয়েছেন ৩৫ শতাংশ। 

এবার ইরান, পাকিস্তানে ফের ‘সার্জিকাল স্ট্রাইক’

পাকিস্তানে ফের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। এবার অবশ্য ভারত নয়, বরং মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরান সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালাল পাকিস্তানের মাটিতে। ইরান রেভোলিউশনারি গার্ড (IRGC) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে ওই সার্জিকাল স্ট্রাইক চালানো হয়। এই অভিযানে তারা দুই ইরানি সেনাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তাঁরা পাকিস্তানের এক সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের হাতে বন্দি ছিল বছর দুই ধরে। ইরানি মিডিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, দুই বছর আগে দুই ইরানি সেনা জওয়ানকে অপহরণ করেছিল জইশ-অল-অদল (Jeish Al-Adl) নামে এক জঙ্গি সংগঠন।