আন্তর্জাতিক
কমছে আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ছে মৃত্যু, জটিল হচ্ছে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি

আন্তর্জাতিক  |  2 weeks ago

লকডাউনের প্রভাব সীমান্তেও পেট্রাপোলে বন্ধ রুজিরোজগার

আন্তর্জাতিক  |  3 weeks ago

সোমবার থেকে লকডাউন শুরু বাংলাদেশে

আন্তর্জাতিক  |  a month ago

ওড়াকান্দিতে মতুয়াদের মনজয় মোদীর

আন্তর্জাতিক  |  a month ago

বাংলাদেশ সফরে মনজয় মোদীর

আন্তর্জাতিক  |  a month ago

স্বাধীনতার ৫০, কতটা পথ এগলো বাংলাদেশ?

আন্তর্জাতিক  |  a month ago

স্বাধীনতার ৫০ আর সেই উপলক্ষ্যে দুদিনের বাংলাদেশ সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

আন্তর্জাতিক  |  2 months ago

বিশে মার্চ আন্তর্জাতিক সুখ দিবস।

আন্তর্জাতিক  |  2 months ago

পাকিস্তানের পাঞ্জাবে একটি বিয়ে বাড়িতে হেলিকপ্টর থেকে টাকা ছড়ালেন ছেলের বাবা

আন্তর্জাতিক  |  2 months ago

এবার আন্তর্জাতিক মঞ্চেও উন্নয়নের প্রশ্নে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আন্তর্জাতিক  |  2 months ago

সর্বশেষ আপডেট
অনেকে পড়ছেন
১৩০ জন শরণার্থী নিয়ে ভূমধ্যসাগরে ডুবল নৌকা

রীতিমতো সমুদ্রপথে প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় ইউরোপের উদ্দেশে যাত্রা করেছিলেন কয়েকশো শরণার্থী। বুধবার লিবিয়া উপকূলে এমনই এক নৌকা ডুবে গেলে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৩০ জন যাত্রীর। জানা যাচ্ছে ছোট্ট নৌকায় ভূমধ্যসাগরের উত্তাল সমুদ্রে নেমে পড়েন কয়েকশো মানুষ। তাঁরা লিবিয়া থেকে পালিয়ে ইউরোপের কোনও দেশে আশ্রয় নিতে চাইছিলেন। কিন্তু মাঝ সমুদ্রেই ঘটে যায় বিপত্তি। প্রায় ৬ ফুট সমান উঁচু ঢেউয়ের ধাক্কায় উল্টে যায় নৌকা। সমাজসেবী সংগঠন ‘SOS Mediterranee’ খবর পেয়েই উদ্ধার অভিযান চালায়। ওই সংস্থা জানিয়েছে, লিবিয়ার ত্রিপলি উপকূল থেকে উত্তরপূর্বে আন্তর্জাতিক জলসীমায় সংস্থার নিজস্ব জাহাজ এবং আরও তিনটি বাণিজ্যিক জাহাজে উদ্ধারকাজে নামানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, একনায়ক মুয়াম্মার গাদ্দাফির মৃতুর পর থেকে প্রায় এক দশক ধরে গৃহযুদ্ধে জর্জরিত লিবিয়া। জেহাদি সংগঠনগুলির সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ চলছে লিবিয়ায়। ফলে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ ছেড়ে ইউরোপের কোনও দেশে পালানোর চেষ্টা করছেন লিবিয়ার মানুষ। সেই চেষ্টায় বিপদের ঝুঁকি নিয়েই ভূমধ্যসাগরে ছোট নৌকা বা জাহাজে ভেসে পড়েন লিবিয়াল অধিবাসীরা। ফলে অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা। এখনও পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিনশো মানুষের সলীল সমাধি হয়েছে পালানোর সময়।

....

2 weeks ago

ভিডিও খবর

Popular TV Programme

স্বস্তি ট্রাম্পের, ইমপিচমেন্ট থেকে মুক্ত হলেন

দ্বিতীয়বার ইমপিচমেন্ট থেকে ছাড় পেলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পাশাপাশি তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে তাণ্ডবে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগেও স্বস্তি পেলেন তিনি। ওই ঘটনায় তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করতে হলে আমেরিকার সনেটের দুই-তৃতীয়াংশ ভোটের মাধ্যমেই সেটা করতে হত। এই সংক্রান্ত শুনানিতে সেনেটের ৫৭ সদস্য ট্রাম্পের বিপক্ষে ভোট দেন। এবং ৪৩ জন ট্রাম্পের পক্ষে ছিলেন। তবে যদি আরও ১০ জন সেনেট সদস্য যদি ট্রাম্পের বিপক্ষে যেতেন তবেই বিপদে পড়তে হত প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। শনিবার ভোটাভুটির পর তাই স্বস্তিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

আর এদিন ইমপিচমেন্ট থেকে নিষ্কৃতি পাওয়ার ফলে ২০২৪ সালে ফের প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ে নামতে আর বাধা থাকলো না ট্রাম্পের। প্রসঙ্গত, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে হামলার উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ ছাড়া আরও দুটি অভিযোগ ছিল। সেগুলি হল হেরে গিয়ে ক্ষমতা ধরে রাখার অভিযোগ ওঠে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে। একইসঙ্গে ভোটের ফল পাল্টে দেওয়ার জন্য চাতুরির আশ্রয় নেওয়ারও অভিযোগ ওঠে। মার্কিন সেনেটে ইমপিচমেন্ট প্রস্তাব পাশ করার জন্য ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ৬৭ ভোট দরকার ছিল। কিন্তু বাস্তবে দেখা গেল তাঁর বিরুদ্ধে ৫৭টি ভোট পড়েছে। তাই আপাতত রেহাই পেলেন সদ্য প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে ২০১৯ সালেও ট্রাম্পের নামে ইমপিচমেন্ট প্রস্তাব এসেছিল। কিন্তু সেই প্রস্তাবও আটকে গিয়েছিল। 

আমেরিকায় বরফ পিছল রাস্তায় পরপর ধাক্কা মারল ১৩০টি গাড়ি

এমনিতেই প্রবল শীতে কাঁপছে আমেরিকা। এরসঙ্গে শীতকালীন ঝঞ্ঝা ‘শার্লি’ নাভিশ্বাস তুলছে মার্কিনীদের। এবার শার্লির দাপটে বড়সড় বিপত্তি ঘটল আমেরিকার টেক্সাসে। সেখানকার বরফ পিচ্ছল রাস্তায় পরস্পর ধাক্কা মারল ১৩০টি গাড়ি। এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় অন্তত ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত একশোজনের বেশি বলে জানা যাচ্ছে। আমেরিকার সময় বৃহস্পতিবার সকালে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তুষার ঝড়ের জন্য টেক্সাসের রাস্তায় বরফ পড়ে পিচ্ছিল হয়ে গিয়েছিল। ফলে রাজপথে চলাচলকারী গাড়ি পিছলে গিয়ে একে অপরকে ধাক্কা মারতে থাকে। সংখ্যাটা গিয়ে দাঁড়ায় শতাধিক। ফলে এলাকায় কার্যত গাড়ির জট পাকিয়ে যায়।

আকাশপথে দেখা গিয়েছে প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা জুড়ে এলোমেলোভাবে গাড়ি ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। বহু কষ্টে সেখানে পৌঁছায় দমকলবাহিনী। পরে তাঁরা উদ্ধারকাজ শুরু করেছে। এই দুর্ঘটনার খবর সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে। একটি ভয়াবহ ভিডিওতে দেখা গিয়েছে একটি ভারী ট্রাক বরফ রাস্তার নিয়ন্ত্রন হারিয়ে একটি পরপর কয়েকটা গাড়িকে ধাক্কা মারে। এর পিছনে আসা গাড়ি গুলিও বরফের জন্য নিয়ন্ত্রন হারিয়ে পরপর ধাক্কা মারতে থাকে। জানা যাচ্ছে, ওই এলাকায় বহু মানুষ আটকে রয়েছেন। আহত ও নিহতদের উদ্ধার করার কাজ চালাচ্ছে পুলিশ ও দমকলবাহিনী। এক অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংস্থার মুখপাত্র ম্যাট জাভাদস্কি জানিয়েছেন, আহতদের মধ্যে অন্তত ৬৫ জনের অবস্থায় আশঙ্কাজনক। পিছল রাস্তার জন্য উদ্ধারকাজ ব্যহত হচ্ছে।

বিবিসির সম্প্রচার বন্ধ করল চিন

করোনাভাইরাস ও চিনের সংখ্যালঘু উইঘুর সম্প্রদায়কে নিয়ে সংবাদ প্রচার করায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে চিনের সরকার। শুক্রবার ভোরে চিনের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিজিটিএন এ তথ্য জানিয়েছে। ব্রিটেনের গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রক অফকম চিনের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক সিজিটিএন-এর সম্প্রচারের লাইসেন্স বাতিলের এক সপ্তাহের মাথায় শুক্রবার চিন বিবিসির সম্প্রচার নিষিদ্ধ করল। চিন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিবিসির ওয়ার্ল্ড নিউজ চিন-সম্পর্কিত রিপোর্টে বিধিনিষেধ ‘গুরুতরভাবে লঙ্ঘন করেছে’ যা ‘সত্যনিষ্ঠ ও ন্যায়সঙ্গত’ হওয়া উচিত। এর ফলে চিনের জাতীয় স্বার্থ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এবং জাতীয় ঐক্যের ক্ষতি করেছে। এক বছরের জন্য প্রতিষ্ঠানটির লাইসেন্সও বাতিল করা হয়েছে। বিবিসি জানিয়েছে, এই সিদ্ধান্তে তারা হতাশ। ব্রিটিশ বিদেশসচিব দোমিনিক রাব বলেছেন, এটা সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ। নিন্দা করেছে আমেরিকাও। তবে বিবিসি ওয়ার্ল্ড নিউজ চিনে বেশি চলে না। কেবলমাত্র আন্তর্জাতিক হোটেল ও কিছু দূতাবাসেই বিবিসি চলে।

জেলেই লাগাতার ধর্ষণের শিকার, অবশেষে মুক্ত সৌদির মহিলা সমাজকর্মী

সৌদি আরবে তিনি মহিলাদের ওপর অত্যাচারের প্রতিবাদে মুখর হয়েছিলেন। মহিলাদের অধিকার আদায় করতে শুধু সরবই হননি, বরং আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন। সৌদির সেই মহিলা সমাজকর্মী লুইজেন অল হাথলাউল অবশেষে জেলমুক্ত হলেন। তিনি আড়াই বছরের বেশি জেলেই ছিলেন। অভিযোগ উঠেছে, জেলে থাকাকালীন তিনি লাগাতার ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন কারা বিভাগের কর্তাদের হাতে। এমনকি তাঁকে নানান উপায়ে নির্যাতন করা হয়েছে বলেও দাবি উঠেছিল মানবাধিকার সংগঠনগুলির তরফে।


বিশ্বজুড়েই লুইজেনের মুক্তির দাবিতে আন্দোলন জোরদার হচ্ছিল। এমনকি তাঁর ওপর হওয়া অত্যাচার নিয়েও সোচ্চার হয়েছিলেন সৌদির মহিলারা। অবশেষে সৌদি আরবের আন্তর্জাতিক চাপে মহিলা সমাজকর্মী তথা নারী আন্দোলনের অন্যতম মুখ লুইজেন অল হাথলাউলকে (Loujain al-Hathloul) মুক্তি দিল সরকার।