ব্রেকিং নিউজ
  (08:15 AM)-২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪,৭৭৪, সুস্থ ২,৫১,৭৭৭      (08:07 AM)-করোনায় মৃত ৩৫, সংক্রমণের হার কমে ১২.৫৮ শতাংশ      (08:06 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত ৯,১৫৪     (07:59 AM)-২২ থেকে ২৪ জানুয়ারি হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা     (07:58 AM)-পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে রাজ্য জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা  
yamuna-river-jump-dead-youth
Deadbody যুবতীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি, নদীতে মরণঝাঁপ যুবকের


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-29 13:01:10


রবিবার সন্ধ্যায় ট্রেন লাইন থেকে যমুনা নদীতে ঝাঁপ দিলেন এক যুবক। ঘটনাটি গোবরডাঙা রেলব্রিজ এলাকার। স্থানীয় এবং পরিবারের সহযোগিতায় দীর্ঘ ১৭ ঘণ্টা পর উদ্ধার হয় দেহ। 

বছর চব্বিশের যুবক, নাম বিশ্বজিৎ সরকার। বাড়ি গোবরডাঙা থানার অখিলপল্লি এলাকায়।  

জানা যায়, রবিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন রেল ব্রিজ থেকে এক যুবককে যমুনা নদীতে ঝাঁপ দিতে দেখেন। তবে পরিবারের অভিযোগ, কেউ তাঁকে ধাক্কা দিয়ে জলে ফেলে দিয়েছে। এমনকি সাঁতার জানত না তাঁদের ছেলে। 

রাতেই যুবককে যমুনা নদীতে খুঁজতে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় গোবরডাঙা দমকল, ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট, ডুবুরি, গোবরডাঙা থানা। যান গোবরডাঙা পুরসভার প্রশাসকও। তবে রাতে আলোর অভাবে কাজে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটলেও নৌকা নিয়ে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টর কর্মীরা যমুনা নদীতে খুঁজতে থাকেন ওই যুবককে।

নিখোঁজ যুবকের বাবা জানান, রবিবার বিকেলে তাঁর সঙ্গে দেখা করে ছেলে। তারপর একজনকে টাকা দিতে যাবে বলে বাড়ি থেকে বের হয়। হঠাৎই স্থানীয় লোকজনের থেকে খবর পান, যমুনা নদীতে পড়ে গেছে তাঁদের ছেলে।

নিখোঁজ বিশ্বজিতের ভাইয়ের অভিযোগ, দুজন মেয়ে ছিল তাঁর দাদার সঙ্গে। হয়ত তারাই ঠেলে ফেলে দিয়েছে তাঁর দাদাকে।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রবিবার সন্ধ্যায় ওই যুবকের কথা কাটাকাটি হচ্ছিল এক যুবতীর সঙ্গে। এরপরই ট্রেন আসায় নদীতে ঝাঁপ দেয় ওই যুবক।

সোমবার ফের সকাল থেকেই যমুনা নদীতে খোঁজ চালায় ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্টের টিম। ১৭ ঘণ্টা পর দেহ উদ্ধার করেন পরিবারেরই লোকজন।

স্থানীয়দের দাবি, প্রথমে তাঁরা জলে নামবেন ভেবেছিলেন। তবে অনুমতি দেয়নি প্রশাসন। কিন্তু ১৭ ঘণ্টা পর যখন তাঁরা প্রশাসনের কাছে দাবি রাখেন, তখন অনুমতি দেয় প্রশাসন। তাঁদের অভিযোগ, প্রশাসন যদি তৎক্ষণাৎ অনুমতি দিত, তাহলে হয়ত বেঁচে যেত এই যুবক। প্রত্যক্ষদর্শীরা ডুবুরিদের একটি জায়গায় খোঁজার কথা বললেও, তারা সেই জায়গায় তল্লাশি চালায়নি। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তারা খোঁজ পাচ্ছিল না। তবে তাঁরা নদীতে নামার ১৫ মিনিটের মধ্যে দেহ উদ্ধার করে।

দেহ উদ্ধার হতেই পরিবারের একরাশ ক্ষোভ প্রশাসনের বিরূদ্ধে। তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন প্রশাসনের কাজকর্ম নিয়ে। কেন তারা আগেই অনুমতি দিল না? কেনই বা নির্বাক দর্শকের মত তাঁদের বসিয়ে রাখা হল?

যুবকের রহস্যজনক মৃত্যুতে স্বাভাবিকভাবেই নানা প্রশ্ন উঠেছে। আদৌ এটা আত্মহত্যা, নাকি খুন, তা খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়েছে পরিবার।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us