ব্রেকিং নিউজ
  (08:15 AM)-২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪,৭৭৪, সুস্থ ২,৫১,৭৭৭      (08:07 AM)-করোনায় মৃত ৩৫, সংক্রমণের হার কমে ১২.৫৮ শতাংশ      (08:06 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত ৯,১৫৪     (07:59 AM)-২২ থেকে ২৪ জানুয়ারি হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা     (07:58 AM)-পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে রাজ্য জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা  
manhole-death-auto-driver-south-dumdum-bengal
Dum Dum: ম্যানহোলে পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু অটোচালকের


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-13 18:42:14


ফের পুরসভার উদাসীনতার অভিযোগ। অভিযোগ, ফুটপাতের মধ্যেই ছিল একটি খোলা ম্যানহোল। যাতে পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হল এক অটোচালকের। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দমদম পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডে। মৃতের নাম রঞ্জন সাহা, বয়স ৫১ বছর। মৃতের বাবা চারমাস আগেই মারা গেছেন। তাঁর ২টি সন্তান। বড় ছেলে স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষে পড়ছে এবং ছোট ছেলের বয়স ১২। 

মাস দেড়েক আগেই, দমদমে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা গিয়েছিল দুই স্কুলপড়ুয়া। এই ঘটনার পর শোরগোল পড়ে গিয়েছিল রাজ্যজুড়ে। প্রশাসনের দায়িত্ব পালন নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন। সেই ঘটনার পরও প্রশাসন যে উদাসীন, তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল দমদমেই ম্যানহোলে পড়ে গিয়ে অটোচালক রঞ্জন সাহার মৃত্যুর ঘটনা। এই অভিযোগ তুলে এলাকার মানুষ ব্যাপক ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন।

চিৎপুর থানার অন্তর্গত এই এলাকায় প্রশাসনের দিকেই আঙুল তুলেছেন একাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। এলাকায় কোনোদিনই পরিদর্শনে আসেন না পুরসভার কেউ। এমনকি মারা যাবার পরও টনক নড়েনি পুরসভার। তবে ভোটের সময় কিন্তু তাঁরা ঠিক বাড়ি বাড়ি গিয়ে সবার কাছে ভোট চাইতে পেরেছেন, এমনটাই ক্ষোভ স্থানীয়দের। 

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রাত ১০.৩০ টায় বাড়িতে ফোন আসে। খবর দেওয়া হয়, তাঁদের পরিবারের এক সদস্যকে আরজিকর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তড়িঘড়ি তাঁরা যেন সেখানে চলে যান। তবে সেখানে চিকিৎসারও গাফিলতির কথা উঠে এসেছে।  বেশ কিছুক্ষণ তাঁকে এমনিই ফেলে রাখার পর টাকা দিলে তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। এমন অভিযোগও উঠেছে।  

তবে ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর গোপা পান্ডে জানান, সকাল থেকেই তাঁরা পরিবারের পাশে আছেন।  যা যা করণীয়, সবটাই করবেন। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও ওই পরিবারের পাশে আছেন। মৃতের স্ত্রী একটি চাকরির দাবি জানিয়েছেন তাঁদের কাছে। তাঁরা সেই বিষয়েও নজর রাখছেন বলে জানান।  

এই বিষয়ে অনুষ্কা নন্দীর মা ও বাবা ফের একবার সরব হলেন। তাঁরা সি এন-কে একান্ত সাক্ষাৎকারে জানান, প্রশাসনের এই বিষয়গুলি দেখা উচিত। মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপেরও দাবি করেন তাঁরা।





All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us