ব্রেকিং নিউজ
  (08:15 AM)-২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪,৭৭৪, সুস্থ ২,৫১,৭৭৭      (08:07 AM)-করোনায় মৃত ৩৫, সংক্রমণের হার কমে ১২.৫৮ শতাংশ      (08:06 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত ৯,১৫৪     (07:59 AM)-২২ থেকে ২৪ জানুয়ারি হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা     (07:58 AM)-পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে রাজ্য জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা  
inhuman-torture-brothers-howrah-bengal
Howrah: দাদাদের আটকে রেখে অমানবিক অত্যাচার ছোট ভাইয়ের


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-16 18:29:36


মানবিকতা কি সত্যিই হারিয়ে গেল ? না হলে শারীরিক ও মানসিকভাবে দুর্বল দুই  ভাইকে ঘরে তালাবন্দি করে রেখে কী করে অত্যাচার চালাত ছোট ভাই? হাওড়ার চ্যাটার্জিহাট থানা এলাকার ৩০/২ অবিনাশ ব্যানার্জি লেনের একটি বাড়ির ঘটনা। আর এই অমানবিক ঘটনার সাক্ষী থাকলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

শারীরিক ও মানসিকভাবে দুর্বল দুই ভাইকে ঘরে তালাবন্দি করে রেখে খেতে না দেওয়া, মারধর করা, এমনকি বিষ খেয়ে মৃত্যু ঘটানোর জন্যও প্ররোচিত করার অভিযোগ উঠল ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে। ভাইদের প্রতি অমানবিক এই আচরণে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন এলাকার মানুষ। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বড় ভাই নৃপেন দেবনাথ (নিপু) এবং মেজ ভাই অপূর্ব দেবনাথ (বেতাল) বলে পরিচিত। এঁদের দুজনকেই দীর্ঘদিন বাড়ির বাইরে দেখতে পাননি এলাকাবাসী। বেশ কয়েকমাস হল মেজ ভাই অপূর্বকে তিনতলা বাড়ির ছাদে দেখা যেত মাঝে মধ্যে। সেখান থেকে সে পাড়ার লোকেদের ইশারা করে খাবার চাইত। দড়িতে ব্যাগ ঝুলিয়ে দিলে পাড়ার লোক তাতে দুই ভাইয়ের জন্য খাবার, পানীয় জল দিতেন। তবে বড় ভাই নৃপেনকে দেখা যেত না বলে দাবি স্থানীয়দের।। এমনকী গত ৯ দিন হল লোকজন অপূর্বকেও আর ছাদে দেখতে পাননি। আর এতেই পাড়ার লোকেদের সন্দেহ হয়। সোমবার তাঁরা চ্যাটার্জিহাট থানায় গিয়ে পুলিসকে গোটা ঘটনা জানান। পুলিস গিয়ে দেখে, বাড়িতে তালা দেওয়া আছে। ফিরে যায় পুলিস। 

মঙ্গলবার সেখানে হাজির হয় ছোট ভাই শুভম দেবনাথ। পাড়ার লোক তাঁকে ঘিরে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করে। কথার গুরুত্ব না দেওয়ায় উত্তেজিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। ফের খবর দিলে আসে পুলিস। পুলিস পৌঁছলে স্থানীয়রা পুলিসকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। স্থানীয়দের আরও অভিযোগ, পুলিস পৌঁছনোর আগেই ছোট ভাই শুভম বড় ভাই নৃপেনকে ছাদের ওপরে একটি আবর্জনায় ভরা ঘরে, যেখানে বড় ভাইকে আটকে রেখেছিল, সেখান থেকে দোতলার একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে বসিয়ে রাখে।

এদিকে ছোট ভাইয়ের অত্যাচারের কথা জানাতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন মেজ ভাই অপূর্ব। তাঁর অভিযোগ, ছোট ভাই তাঁদের মারধর করত, কখনও লাঠি, কখনও বেল্ট দিয়ে। তাঁর আরও অভিযোগ, এমনকী তাঁদের বিষ খেয়ে মরে যাওয়ার জন্যও বলতো।

ছোট ভাইয়ের এই অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকার মানুষ। থানায় তাঁরা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিস অসুস্থ ও বিপর্যস্ত দুই ভাইকে উদ্ধার করে হাওড়া হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তবে  ছোট ভাই  শুভম  দেবনাথ তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এখন দেখার তবে কি সম্পত্তির জন্য বড় দুই ভাই কাঁটা ছিল, নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোনও রহস্য। 





All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us