howrah-tmc-murder-raigange
Murder: হাওড়ায় কাছ থেকে গুলি, খুন তৃণমূল নেতা


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-23 12:42:31

বাড়ির সামনে গুলিবিদ্ধ হলেন হাওড়া জেলা সদরের তৃণমূল সংখ্যালঘু সেল-এর সম্পাদক ওয়াজিদ খান। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ হাওড়ার নজিরগঞ্জ থানার বকুলতলা এলাকায়। ওই তৃণমূল নেতা বাড়ির সামনে আড্ডা দিচ্ছিলেন। পাশাপাশি তিনি সেখানে বসেই এলাকার মানুষের বিভিন্ন সমস্যার কথা শুনতেন। ওই সময় দুটি বাইকে জনা পাঁচেক দুষ্কৃতী এসে ঘিরে ফেলে ওয়াজিদকে। এরপর পয়েন্ট ব্ল্যাংক রেঞ্জ থেকে কমপক্ষে তিন রাউন্ড গুলি চালায় তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই তৃণমূল নেতাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। তদন্তে নেমেছে পুলিস।

উল্লেখ্য, রাতে তাঁর মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়তেই অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। আন্দুল, নাজিরগঞ্জ এলাকায় দফায় দফায় করা হয় রাস্তা অবরোধ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কার্যত বেগ পেতে হয় পুলিসকে। পরে প্রশাসনিক আধিকারিকরা সাঁকরাইল থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে দুই ব্যক্তিকে। পরে নাজিরগঞ্জ লঞ্চঘাট থেকে আরও একজনকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত ৭ থেকে ৮জনের একটি দল।  তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিস আরও জানায়, এরা বাইরে থেকে আসা দুষ্কৃতী দল।  এখানে দীর্ঘদিন ধরে জুয়া-সাট্টা চালাচ্ছিল। ওয়াজিদ খান এই জুয়া খেলার বিরোধিতা করেছিলেন। এর ফলে তিনি বারবার ক্ষোভের মুখে পড়েন। প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও আসে তাঁর কাছে।

মৃতের ভাই জানান, তাঁর দাদা প্রতিদিন রুটিন মাফিক সন্ধ্যা ৬টা-সাড়ে ৬টা নাগাদ পুরনো বাড়ি থেকে নতুন বাড়ি আসেন। এখানে বসেই সকলের সমস্যার কথা শোনেন। আর তা সমাধান করতেন। আর এদিনও এখানে বসেই কথা বলছিলেন। তখন হঠাৎ দুষ্কৃতীদলটি এসে তাঁর ভাইকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পুলিস খুব দ্রুত কাজ করেছে বলে দাবি তাঁর। আশা করছেন, খুব শীঘ্রই তাঁর দাদার সকল খুনি ধরা পড়বে।

অন্যদিকে, শনিবার সন্ধ্যায় রাজগঞ্জ ব্লকের গন্ডার মোড় এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন তৃণমূল নেতা মোহম্মদ সলেমান। মঙ্গলবার সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। শনিবার সংকটজনক অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ফুলবাড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে। সেখান থেকে চিকিৎসার কারণে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয়। সোমবার সন্ধ্যায় পুনরায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়। আর ভোর ছ' টার সময় চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন তাঁকে। খবর ছড়িয়ে পড়তেই পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের নিকারিঘাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের যুব অঞ্চল সভাপতি মহরম শেখ কদিন আগেই খুন হন। শনিবার রাত আনুমানিক ৭টা থেকে ৮টা নাগাদ ৪ থেকে ৫ জন দুষ্কৃতী। তাঁর বুক, হাত ও কানে গুলি লাগে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই রবিবার সকালে মৃত্যু হয় ক্যানিংয়ের যুবনেতার।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us