শিরোনাম
fish-sagardighi-bengal-deprive
Fish সাগরদিঘিতে মাছ ধরায় বঞ্চনার অভিযোগ


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-22 16:46:27

মুর্শিদাবাদ জেলার সাগরদিঘির দামোচ বিলে মাছ ধরা থেকে বঞ্চিত জমিহারা কৃষক ও মৎস্যজীবীরা। অভিযোগের তিরে তৃণমূলের ছত্রচ্ছায়ায় থাকা একটি কো-অপারেটিভ সোসাইটি।

জমিহারা কৃষকরা জানান, দামোচ বিলের মোট ৫০০ একরের মধ্যে ২০০ একর জায়গা সরকারের। এর মধ্যে ১১৯ একর জায়গায় সরকারের তরফে সাগরদিঘি ফিশারমেনস কো-অপারেটিভ সোসাইটিকে লিজে মাছ ধরার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যার মেয়াদ আগামী চৈত্র মাসে শেষ হয়ে যাবে। জমিহারা কৃষকদের অভিযোগ, ২০০ একর জায়গা বাদ দিয়ে বাদবাকি ৩০০ একর জায়গা তাঁদের। কিন্তু ওই কো-অপারেটিভ সোসাইটি জোরপূর্বক পুরো বিল থেকেই মাছ সংগ্রহ করছে। কোনও মৎস্যজীবী বা জমিহারা কৃষক মাছ ধরতে গেলে তাঁদের মারধর করা হচ্ছে বলে অভিযোগ।

ফরাক্কা বাঁধ চালু হওয়ার পর দামোচ বিল সংলগ্ন এলাকায় থাকা কৃষকদের জমিগুলি জলের তলায় চলে যায়। এর ফলে তাঁদের  সেখানে চাষাবাদ করার সুযোগ নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু তাঁদের সেই জমি দখল করে জোরপূর্বক সেখানে মাছ ধরার অভিযোগ কো-অপারেটিভ সোসাইটির বিরুদ্ধে ওঠে। মৎস্যজীবীদের আরও অভিযোগ, তারা শাসকদলের অঙ্গুলি হেলনেই কাজ করছে। এই বিষয়ে তাঁরা মুর্শিদাবাদের ডিএম-কে ডেপুটেশন দেবেন বলে জানিয়েছেন।

তবে সাগরদিঘি ফিশারমেনস কো-অপারেটিভ সোসাইটির সদস্য আমানুল ইসলাম জানিয়েছেন, তাঁরা সরকারের অনুমতি নিয়েই এই দামোচ বিল থেকে মাছ শিকার করছেন। তাছাড়া এই বিলে প্রচুর পরিমাণে মাছের পোনা ও ছোট মাছ ছাড়া হয়েছে। সেগুলিই এখন তাঁরা সংগ্রহ করছেন।

এর পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের মোট ১১৯ একর জায়গা বাস্তবে ঘিরে ফেলা সম্ভব নয়। মাছ পুরো জলাভূমিতে চলে যাচ্ছে। এছাড়াও মাছ ধরতে গিয়ে কিছু মানুষের রোষানলে পড়তে হচ্ছে বলে তাঁরা স্থানীয় সাগরদিঘি থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন।

রাজ্যের মন্ত্রী তথা সাগরদিঘির বিধায়ক সুব্রত সাহা জানিয়েছেন, তিনি এই বিষয়টি সম্পর্কে জানেন। কিন্তু তাঁদের পার্টি এই বিষয়ে জড়িত নয়।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us