ব্রেকিং নিউজ
  (11:33 AM)-হলদিয়ায় বিএসএনএলের কেওয়াইসি-র নামে অ্যাকাউন্টের সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা লুঠ      (11:30 AM)-রাস্তা হারিয়ে দিশাহারা দশটি দাঁতাল, বাঁকুড়ার ছাতনায় সাত সকালেই দাপাল হাতির দল     (11:29 AM)-শান্তিনিকেতনে জাল নোটের হদিশ     (09:51 AM)-খিদিরপুর ট্রাম ডিপোর নিকটে দুর্ঘটনা, মৃত্যু ১ ব্যক্তির     (09:50 AM)-ভিক্টোরিয়ার সাউথ গেটের সামনে এ জে সি বোস রোড ফ্লাইওভারে ওঠার মুখে বাইক দুর্ঘটনা      (09:48 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ৪৪৭, মৃত্যু হয়েছে ৩৮ জনের     (09:45 AM)-দেশে মোট ওমিক্রন আক্রন্তের সংখ্যা ৯ হাজার ২৮৭ জন     (09:45 AM)-দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৫৩২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪৯১ জনের     (09:33 AM)-আমহার্স্ট স্ট্রিট-এর এম এম চ্যাটার্জি রোডে আগুন, ঘটনাস্থলে ৪টি ইঞ্জিন  
elephant-attack-woman-dead-sonamukhi-bankura-bengal
Elephant হাতির তাণ্ডবে মহিলার মৃত্যু


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-21 18:51:32


দীর্ঘদিন ধরে হাতির তাণ্ডবে দিশাহারা চাষিরা। ফালাকাটা ব্লক, ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্ৰাম ব্লক, জলপাইগুড়ি শহর, গলসি, আউসগ্রাম সহ বর্ধমানের বেশ কিছু জায়গায় হাতির তাণ্ডবে নষ্ট হয়েছে ধান। বেশ কিছু জায়গায় পাকা ধান বা মজুত আটা ও অন্যান্য খাবার সাবার করেছে হাতির দল। ভেঙেছে বাড়ি। এবার ফের সোনামুখী জঙ্গলে বুনো হাতিদের তাণ্ডব।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সোনামুখী জঙ্গলে বুনো হাতির তাণ্ডবে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন সেখানকার কৃষকরা। জমিতে সবজি হোক বা ধান, সবটাই শেষ হয়েছে তাদের পায়ের নীচে পড়ে। আগে হাতির দলটিকে স্থানীয় বন দফতরের কর্মীরা দামোদর পার করে বর্ধমানের দিকে পাঠিয়ে দিয়েছিল। তবে সেখানেও ক্ষতির মুখে চাষিরা। শুক্রবার ফের দামোদর পেরিয়ে সোনামুখীর দিকে চলে আসে হাতির দলটি। রবিবার হাতির আক্রমণে মৃত্যু হয় এক মহিলার। ঘটনাটি বাঁকুড়ার সোনামুখী থানার বুড়ি আঙ্গারিয়া এলাকার। মৃতের নাম লক্ষ্মী সরেন। বয়স আনুমানিক ৫২ বছর।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার দুপুরে সোনামুখী রেঞ্জ এলাকায় লক্ষ্মী সরেন অনেকের সাথে মাঠে ধান কাটছিলেন। সেই সময় জঙ্গল থেকে একটি দাঁতাল হাতি ধান জমিতে ঢুকে পড়ে। হাতি দেখে অনেকেই পালিয়ে যান। পালাতে পারেননি লক্ষ্মী দেবী। সেই সময় দাঁতাল হাতিটি তাঁকে শুঁড়ে করে ধরে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে, বুকের উপর পা দিয়ে আক্রমণ করে। এরপরে হাতিটি চলে গেলে স্থানীয় মানুষ তাঁকে উদ্ধার করে সোনামুখী হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিত্সকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে। 

স্থানীয় বাসিন্দা মঙ্গল সরেন জানান, শনিবার রাত থেকেই জেগে বসে আছেন তাঁরা। বর্ধমান থেকে আসা সেই হাতির দলটি বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত হয়ে সোনামুখী রেঞ্জ এলাকার বিভিন্ন জঙ্গলে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। ওই দলেরই একটি হাতি আক্রমণ চালিয়েছে বলে জানান। তাঁরা তাড়াতাড়ি হাতিগুলিকে সরানোর ব্যবস্থা করার জন্য বন দফতরের কাছে দাবি জানান। নাহলে তাঁদের জীবন নিয়েও টানাটানি হচ্ছে।

এবিষয়ে সোনামুখী রেঞ্জ অফিসার দয়াল চক্রবর্তী জানান, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। মৃতের পরিবারকে সোমবার সরকারিভাবে অর্থ অনুদান দেওয়া হবে ৭৫ শতাংশ। বাকি ময়নাতদন্ত হবার পর দেওয়া হবে। তবে তিনি জানান, খুব দ্রুত হাতিগুলিকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা তাঁরা করছেন।

এখন দেখার কবে হাতির তাণ্ডবের থেকে রক্ষা পান এলাকাবাসী। কবেই বা মেটে ফসল নষ্টের সমস্যা। আতঙ্কে রয়েছে গোটা এলাকা।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us