bishnupur-mandir-theft-bengal
Old Temple: ৪০০ বছরের পুরনো মন্দিরে দুঃসাহসিক চুরি


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-25 14:09:21

বিষ্ণুপুরে ৪০০ বছরের পুরনো মন্দিরে দুঃসাহসিক চুরি। রাজা বীর হাম্বিরের দেওয়া পায়ের নূপুর সহ লক্ষাধিক টাকার সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দুষ্কৃতীদের। এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য। 

বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর পুরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাক্ষীগোপাল পাড়ায় মল্লরাজা বীর হাম্বিরের আমলে তৈরি প্রাচীন সাক্ষীগোপাল মন্দিরের ভিতরে রয়েছে রাধামাধবের মূর্তি। এই মূর্তিগুলি সাজানো ছিল সোনার অলংকারে। রাধা বিগ্রহের পায়ে ছিল তৎকালীন মল্লরাজা বীর হাম্বিরের দেওয়া নূপুর, ছিল সোনার তৈরি বাঁশি। মন্দিরের ভিতরে ছিল প্রণামী বাক্স। রাতের অন্ধকারে কেউ বা কারা মন্দিরের গেটের তালা ভেঙে সোনার গহনা নিয়ে চম্পট দেয় বলে অভিযোগ। বৃহস্পতিবার সকালে মন্দিরের সেবায়েতের নজরে পড়তেই শোরগোল পড়ে যায় এলাকাতে। ভিড় জমান স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর দেওয়া হয় বিষ্ণুপুর থানায়। তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিষ্ণুপুর থানার পুলিস। 

মহন্ত পরিবার সূত্রে জানা গেছে, মন্দিরের ৮ থেকে ৯টি তালা ভেঙে একদল দুষ্কৃতী চম্পট দেয়। দুষ্কৃতীরা রাধা ও গোপালের মূর্তির ক্ষতি করেছে, জানিয়েছেন গৌতম মহন্ত। মন্দির চত্বরে এই সপ্তাহে সিসিটিভি লাগানোর পরিকল্পনা ছিল, আর তার আগেই এই ধরনের ঘটনা ঘটে যাওয়ায় দুশ্চিন্তায় তাঁরা।

গোপালচন্দ্র গুহ নামে আরেক স্থানীয় বাসিন্দা চুরির ঘটনা জানতেই আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। চোরেদের কঠিনতম শাস্তির দাবি করেছেন তিনি।

তবে মন্দিরনগরী বিষ্ণুপুরে এভাবে বারবার চুরির ঘটনায় এলাকার মানুষ রীতিমতো  আতঙ্কিত। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে মন্দিরনগরীর নিরাপত্তা নিয়ে। উল্লেখ্য, বিষ্ণুপুর শুধু মন্দিরনগরী নয়, এটি অন্যতম পর্যটনকেন্দ্রও। দূরদূরান্তের বহু মানুষের এখন অন্যতম গন্তব্য বিষ্ণুপুর। কয়েকদিন আগে এখানকার রাসমঞ্চে রাস উৎসব উপলক্ষ্যে প্রচুর ভক্তের সমাগম হয়েছিল। বিষ্ণুপুর বিখ্যাত তার অনন্য সৃষ্টি বালুচরী নিয়েও। ফলে এখানে নানা টানে যেসব পর্যটক ছুটে আসেন, তাঁদের কাছে এই ধরনের ঘটনা ভুল বার্তা পৌঁছে দিতে পারে বলেও অনেকের ধারণা। সেই কারণে এখানকার বাসিন্দারাও চাইছেন, পুলিস এবং প্রশাসন নিরাপত্তার বিষয়ে আরও সক্রিয় হোক। 




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us