ব্রেকিং নিউজ
  (08:15 AM)-২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪,৭৭৪, সুস্থ ২,৫১,৭৭৭      (08:07 AM)-করোনায় মৃত ৩৫, সংক্রমণের হার কমে ১২.৫৮ শতাংশ      (08:06 AM)-গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্ত ৯,১৫৪     (07:59 AM)-২২ থেকে ২৪ জানুয়ারি হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা     (07:58 AM)-পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে রাজ্য জুড়েই বৃষ্টির সম্ভাবনা  
Nurgram-Sanko-problem
Nurgram: কালভার্ট ভাঙা, তাই ভাঙছে মেয়ের বিয়ে


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-19 13:24:48


কালভার্ট ভাঙা। একের পর এক বিয়ে যাচ্ছে ভেঙে । কালভার্ট  দিয়ে একটি গাড়িও যায়না। কালভার্টটির অবস্থা এতটাই খারাপ, যা পেরিয়ে যেতে কার্যত নাক সিঁটকোচ্ছে ছেলের বাড়ির লোক । আশপাশের চারটি গ্রামের ছেলে-মেয়ের বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বিয়ে।  এমনটাই অভিযোগ দেগঙ্গা নুরনগর পঞ্চায়েতের খেজুরডাঙা গ্রামের বাসিন্দাদের।

গ্রামের সাতক্ষীরা নদীর ওপর মাত্র কয়েক বছর আগেই তৈরি হয়েছিল একটি কালভার্ট । খেজুরডাঙা, গাংহাটি, সোয়াই, নিরামিশা এই  চারটি গ্রামের সহজ পথ হিসাবে কালভার্টটি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, বিকল্প পথ বলতে প্রায় তিন কিমি ঘুরপথে যেতে হয় গ্রামবাসীদের। রাতবিরেতে হামেশাই দুর্ঘটনা ঘটছে ওই এলাকায়। কালভার্ট  ভেঙে গেলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে এই চার গ্রামের। স্থানীয় মানুষদের অভিযোগ পঞ্চায়েত, বিডিওকে একাধিকবার জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি। ভোট আসলেই প্রতিশ্রুতির বাক্স নিয়ে হাজির হয় নেতারা ভোট মিটলেই পগারপার।

ওই গ্রামের বাসিন্দা রাকিয়া বিবি জানান, ভাঙা পোলের জন্যই যত সমস্যা। এই পোল দিয়ে গাড়ি যেতে পারেনা। বাইক, রিক্সা কোনো কিছুই যেতে পারেনা। এমনকি সবজি বিক্রি করতেও যেতে পারেনা। এই পোল ভেঙে গেলে বিপদ। এটি গ্রামের মূল রাস্তা। এর পোলের ওপারের রাস্তা দিয়েই অনেক জায়গায় যেতে হয়। এই পোল ঠিক করার জন্য সবাইকে বলা হচ্ছে, কিন্তু কেউ এর ব্যবস্থা করছেনা। ৪-৫ বছর হয়ে গেল এই অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এখান দিয়ে যাওয়ার সময় অনেকেই বিপদের মুখে পড়ে।

গ্রামের আরেক বাসিন্দা কোহিনূর বিবি বলেন, তাঁরা ভয়ে বাচ্চাদের বাড়ি থেকে বেরোতে দেননা। কারণ খেলতে গিয়ে ওই খালে পড়ে গেলে জলের তোড়ে ভেসে যাবে।এমনিতে খালটা অনেকটা গভীর।  সবসময় আতঙ্কে থাক্তে হয়। এমনকি মেয়ের বিয়ের জন্যও ছেলের বাড়ি থেকে আসলেও রাস্তা দেখে তাঁরা রাজি হন না। একটা গাড়িও যেতে পারেনা এদিক দিয়ে।

মহম্মদ কুতুবুদ্দিন মোল্লা নামে গ্রামের এক যুবক এই বিষয়ে বলেন, অনেকবার তাঁরা গ্রামের বিধায়ক রোহিমা মন্ডলকে জানিয়েছেন। অভিযোগ ৩-৪ বছর ধরে কথা দিয়েও কোনও ব্যবস্থা এখনও করেননি। ২০ বছর আগে এই পোলটি তৈরি হয়েছিল। এখন ভাঙতে ভাঙতে শেষ পর্যায় এসে পড়েছে।

এলাকার বিধায়ক রহিমা বিবি এই অভিযোগের বিষয়ে জানান, নুরনগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় একাধিক উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। কিন্তু সব কাজ একসঙ্গে করা সম্ভব নয়। তবুও এই কালভার্টটি যাতে দ্রুত মেরামত করা হয় সে বিষয়টা দেখছেন স্থানীয় বিধায়ক । দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাসও দিয়েছে তিনি ।  

প্রদীপের নিচেই যেমন অন্ধকার থাকে নুরনগর পঞ্চায়েতের এই চার গ্রামে মানুষ রয়েছে সেই অন্ধকারে। যেখানে উন্নয়নের ঢাক বাজে, কিন্তু সামান্য একটা কালভার্টের সংস্কারও হয় না। মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠকে সমস্ত জনপ্রতিনিধিকে এলাকায় ঘুরে দেখে সমস‍্যার কথা জানাতে বলেছেন। এখন নুরনগরের মানুষ অপেক্ষা করছেন মুখ‍্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরে কবে বিধায়ক এই জরুরি সমস‍্যার কথা তুলে ধরেন ।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us