শিরোনাম
-school-timing-change-bengal
School রাজ্যে স্কুলের সময় পরিবর্তন


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-22 11:22:41

করোনা আবহে প্রায় দীর্ঘ ২ বছর বন্ধ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। স্কুলমুখি হয়নি ছাত্র-ছাত্রীরা। খাতায় কলমে পরীক্ষা দিতে ভুলেই গেছে তারা। সবটাই এতদিন ইন্টারনেটের মাধ্যমে হচ্ছিল। তবে এবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে স্কুলগুলি। অনলাইনের অবসান ঘটিয়ে ফের স্কুলমুখি পড়ুয়ারা। আবার শুরু হয়েছে স্বাভাবিক ছন্দে পঠনপাঠন। তবে এবার আগের মতো বন্ধুর হাত ধরে গল্প করতে করতে স্কুলে ঢোকার অনুমতি আর নেই। কার্যত এক হাত দূরত্ব রেখে করোনার সমস্ত প্রোটোকল মেনে স্কুলে প্রবেশ করতে হচ্ছে পড়ুয়াদের। তবুও এতদিন পর দেখা, ক্লাসরুমে বসে ক্লাস করতে পারবে, এইটুকুই যা স্বস্তি। তার মধ্যেও রয়েছে বাধা। এক বেঞ্চে ন্যূনতম ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রেখে বসতে হচ্ছে। আর এই দূরত্ববিধির হিসেব কষতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে, বেঞ্চ পিছু কোথাও একজন বা খুব বেশি হলে মেরেকেটে দুজন করে পড়ুয়া বসছে। 

তবে এবার বাধ সাধল তাতেও। করোনা আবহের কথা মাথায় রেখে নতুন সময় অনুযায়ী হবে স্কুলের পঠনপাঠন। সোমবার থেকে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস সোমবার, বুধবার এবং শুক্রবার হবে। পাশাপাশি নবম ও একাদশ শ্রেণির ক্লাস মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার হবে। সময়সূচি সকাল ১০ টা ৫০ মিনিট থেকে বিকেল ৪ টে ৩০ মিনিট পর্যন্ত। শনিবার বন্ধ থাকবে পঠনপাঠন। শনিবার সচেতনতামূলক বিষয় নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ কাজ করবে। 

অন্যদিকে দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার পার্বত্য অঞ্চলের বিদ্যালয়ের সময় সকাল ৯ টা ৩০ থেকে বিকেল ৩ টে অবধি। এছাড়াও ছুটির দিনগুলিতে ক্লাস সংক্রান্ত বিষয় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির উপর ছাড়া হয়েছে।

এরাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছিলেন, চিন্তার কারণ নেই। ধাপে ধাপে সমস্ত ক্লাস খুলবে। উঁচু ক্লাস মঙ্গলবার খোলার পর অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা। ছোট ক্লাসের ছাত্রছাত্রীদের অবিভাবকদের একদল শিক্ষা দফতরে আবেদন যেমন করেছে, আর একদল অবিভাবক স্কুল খোলার বিরুদ্ধে।

মাত্র ৬ দিন ক্লাস শুরু হওয়ার পরই শিক্ষা দফতরের এই সিদ্ধান্ত বদল ঘিরে সন্দিহান শিক্ষক থেকে অভিভাবকরা। তবে গত ৬ দিন আক্রান্তের কোনও খবর নেই। তবুও কেন দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস ৩দিন এবং নবম ও একাদশ শ্রেণির ক্লাস ২দিন ধার্য করা হয়েছে, এখন এটাই বড় প্রশ্ন। 

এবিষয়ে বঙ্গীয় শিক্ষক শিক্ষাকর্মী সমিতির সহ সাধারণ সম্পাদক স্বপন মন্ডল জানান,  প্রথম দিন পড়ুয়াদের মধ্যে স্কুলে আসার উৎসাহ থাকলেও পরে ঘাটতি দেখা যায়। পড়ুয়াদের সংখ্যা কমতে থাকে। এবিষয়ে তাঁরা মধ্যশিক্ষা দপ্তর এবং শিক্ষামন্ত্রীকে জানান। এছাড়াও দূরদূরান্ত থেকে আসা শিক্ষক-শিক্ষিকারা সকাল সাড়ে ৯ টার মধ্যে ঢুকতে পারছিলেন না। সময় কমানোর কথাও জানান তাঁরা। আর সোমবার থেকেই নয়া নির্দেশিকা। এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। 





All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us