greg-chapel-indian-cricket
Greg Chapel: গ্রেগ চ্যাপেল একই আছেন


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-23 15:45:35

একটা প্রবাদ আছে "স্বভাব যায় না মোলে"। অর্থাৎ ভালো মনের মানুষ যতই কঠিন সময় আসুক, ভালোই থাকে সে। আর খারাপ মনের মানুষের চরিত্রের পরিবর্তন হয় না শেষদিন অবধি | গ্রেগ ওই দ্বিতীয় শ্রেণির মানুষ | ৭০ এর মধ্যভাগ থেকে ক্রিকেট দুনিয়ায় তিন কিংবদন্তি ক্রিকেটারের মধ্যে কে সেরা ব্যাটসম্যান, তা নিয়ে দীর্ঘ তর্ক ছিল | 

সুনীল গাভাস্কার, ভিভিয়ান রিচার্ডস এবং গ্রেগ চ্যাপেল | তিনজনের মধ্যে মিল ছিল যেমন, অমিলও প্রচুর | সানি ওপেনিং ব্যাটসম্যান ছিলেন | তাঁর ক্রিকেট জীবনে যা রেকর্ড করেছিলেন, তার ধারেকাছেও কেউ ছিল না। কিন্তু রানটাই বড় কথা নয়, তার সাথে ব্যক্তিবিশেষের নেতৃত্বে দেশ কী পেল, সেই প্রশ্নও থাকে | গাভাস্কার ঠান্ডা মাথার বুদ্ধিমান এবং নিষ্ঠাবান মানুষ চিরকাল | খেলার বাইরে পরিবারের প্রতি তাঁর দায়িত্ব চিরকাল পালন করেছেন | রিচার্ডস ছিলেন উন্নাসিক, বহু নারীগমন ছাড়াও মদ্যপানে আসক্তি ছিল। কিন্তু সহ খেলোয়াড় বা নব্য খেলোয়াড়দের চিরকাল প্রশংসা করে এসেছেন | তিনি বলতেন, গাভাস্কার আমার থেকে অনেক ভালো খেলোয়াড় | ভিভ একাই ১৯৭৯ এর বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ব্যাট করে দেশকে চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন |

এঁরা দুজন দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন | কিন্তু গ্রেগ চ্যাপেল ছিলেন ধূর্ত মানুষ | মাঠে কিংবা বাইরে তাঁর বহু ঘটনা তাঁকে খাটো করেছে | অস্ট্রেলিয়া দলে লিলি ছিলেন উগ্র মেজাজের ফাস্ট বোলার | বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা বোলার হলেও মাঠে ব্যবহার ছিল অত্যন্ত খারাপ | এমনিতে মাঠের বাইরে লিলি খুব ভদ্রলোক হিসাবে নাম করেছিলেন। এই কারণে বহু জায়গায় তাঁর আমন্ত্রণ থাকত কোচিং করানোর | গ্রেগ নাকি লিলিকে উস্কানি দিতেন বডিলাইনে বল করার জন্য এবং জমে যাওয়া খেলোয়াড়দের মাঠেই গালাগাল দিয়ে উস্কাতেন | একবার লিলির দুর্ব্যবহারে গাভাস্কার মাঠ থেকে বেরিয়ে আসছিলেন | শোনা যায় পাকিস্তানের সেরা ব্যাটার জাভেদ মিঁয়াদাদকেও গালাগাল করেছিলেন লিলি। তাতে প্রায় মারামারি হওয়ার জোগাড় | এর পিছনেও গ্রেগের উস্কানি ছিল | 

এদেশে কোচ হয়ে আসেন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির ইচ্ছায়, যে সৌরভ গ্রেগের মাকে অপারেশনের জন্য অর্থ সাহায্য করেছিলেন | তিনি ভারতের কোচ হয়েই সৌরভকে দল থেকে ছেঁটে দেন | এরপর সচিন, শেহবাগ থেকে প্রায় সব খেলোয়াড়দের সঙ্গে মালিক-শ্রমিকের সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন | মাঠে বোলারদের বলতেন, শুধু বল করলেই চলবে না, উল্টো দিকের খেলোয়াড়দের উত্যক্ত করবে বাজে ভাষায় | একবার তিনি অধিনায়ক থাকার সময় শেষ ওভারের শেষ বলে ৫ রান দরকার ছিল | গ্রেগ বোলার ট্রেভরকে আদেশ দিলেন, শেষ বল হাত ঘুরিয়ে না করে আন্ডারআর্ম বা গড়িয়ে বল করতে, যেটা আইনসিদ্ধ হলেও অখেলোয়াড়োচিত। কিন্তু তাই করেছিলেন গ্রেগ | আজ তিনি ক্রিকেট থেকে অনেক দূরে এবং তাঁর একটি বই বেরিয়েছে বাজারে। তাতে তিনি গর্বের সঙ্গে ভারতীয় খেলোয়াড়দের সঙ্গে তিনি যে খারাপ ব্যবহার করতেন, তা স্বীকার করেছেন | আসলে গ্রেগ অপরিবর্তিত এবং খারাপ হয়েই রইলেন ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে |




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us