শিরোনাম
sskm-nurse-demonstration-kolkata-bengal
Sskm এসএসকেএম-এ নার্সদের অবস্থান-বিক্ষোভ ১২ তম দিনে


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-23 20:22:54

একাধিক দাবি নিয়ে এসএসকেএম-এর নার্সেস ইউনিটির সদস্যদের অবস্থান-বিক্ষোভের মঙ্গলবার ছিল ১২ তম দিন। যতদিন না তাঁদের দাবি মেনে নেওয়া হবে, ততদিন এই বিক্ষোভ চলবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

এসএসকেএম-এর নার্সরা যে একাধিক দাবি তুলেছেন, সেগুলির মধ্যে অন্যতম হল--

  • 1. যে পে-স্কেলের যোগ্য তাঁরা, সেই পে-স্কেল তাঁদের দিতে হবে।
  • 2. যাঁদের বদলি করা হল, তাঁদের ফিরিয়ে আনতে হবে।
  • 3. সারা রাজ্যজুড়ে নার্সদের ওপর বিভিন্নভাবে প্রশাসনিক নিগ্রহ চলে। বারবার তাঁদের হুমকি দেওয়া হয় অন্য জায়গায় বদলি করে দেওয়ার। অবিলম্বে তা বন্ধ করতে হবে।

এই অবস্থান-বিক্ষোভের জেরে হাসপাতালের স্বাস্থ্য পরিষেবা বিঘ্নিত হচ্ছে বলে সোচ্চার হয় কয়েকটি সংগঠন। মামলাকারীদের বক্তব্য, হাসপাতালের ভিতরে মাইকিং চলছে। যার ফলে রোগীর পরিষেবা দিতে সমস্যা হচ্ছে।  কলকাতা হাইকোর্টে এই বিক্ষোভ তুলে নেওয়ার আর্জি জানিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিল এই সংগঠনগুলি।

মঙ্গলবার এই মামলার শুনানি হয় হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে। আর রায় নার্সদের পক্ষে যায়।  বিক্ষোরত নার্সরা জানান, তাঁদের কথা যে বুঝেছে হাইকোর্ট, তাতে তাঁরা ভীষণই স্বস্তি পেয়েছেন। তাঁরা রোগী পরিষেবাতে কোনওরকম অবহেলা করেননি। রোগীদের যাতে কোনওরকম সমস্যা না হয়, সেদিকটা তাঁরা খেয়াল রেখেছিলেন। তাঁরা অবস্থান-বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন। সোমবারের আগে তাঁদের সাথে প্রশাসন যদি কথা বলে এবং তাঁদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রাখে, তাহলেই তাঁরা এই বিক্ষোভ তুলে নেবেন। 

আর শব্দদূষণ নিয়ে এসএসকেএমের নার্সদের নামে যে অভিযোগ করা হয়েছে, তা একেবারেই যুক্তিহীন বলে দাবি তাঁদের। কারণ, তাঁরা মাইক নয়, বক্স চালান। আর সেই বক্সের আওয়াজ বেশিদূর যাওয়া সম্ভব নয়। এমনকি হাসপাতালের মধ্যে সেই বক্সও বাজান না। আর তা রোগীদের কথা ভেবেই । জানালেন বিক্ষোভরত নার্স। 

প্রসঙ্গত, এর আগে জুলাই মাসে তাঁরা অবস্থান-বিক্ষোভ করেন।  সেই সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-এর কাছে একটি চিঠিও দেন। যার কোনও প্রত্যুত্তর এখনও পাননি বলে জানালেন বিক্ষোভরত নার্সরা। তাঁদের সেই বিক্ষোভ ৬ অগাস্ট শেষ হয়েছিল প্রতিশ্রুতির মাধ্যমে। সেই প্রতিশ্রুতি কতদূর এগোল, তা খবরাখবর নিতে  স্বাস্থ্য ভবন গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখান থেকে কোনও সন্তোষজনক উত্তর পাননি। বরং প্রতিহিংসাপরায়ণ স্বরূপ একটি বদলির নোটিস এসছিল। তারপরই তাঁদের এই অবস্থান।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us