ব্রেকিং নিউজ
nadia-health-centre-problem
Health centre: উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র নামমাত্র, নেই কোনও চিকিৎসা পরিষেবা


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-26 15:54:55


নদিয়ার ভীমপুর থানার অন্তর্গত রাঙিয়াপোতা বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী একটি গ্রাম। এই গ্রামে দীর্ঘদিন ধরেই শিক্ষা ও চিকিৎসা পরিকাঠামো ছিল না বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে সাধারণ মানুষের সুচিকিৎসার জন্য ঢাক ঢোল পিটিয়ে তৈরি হয়েছিল উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র। এলাকাবাসী ভালো চিকিৎসা পরিষেবা পাবে এই আশায় বুক বেঁধে ছিলেন। কিন্তু গ্রামবাসীদের সেই স্বপ্নপূরণ হল না।

আগে গ্রামের বাসিন্দারা অসুস্থ হলে বিএসএফের শরণাপন্ন হতেন। বিএসএফ অসুস্থ মানুষকে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যেতেন। এখন উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের অবস্থা শোচনীয়। উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেই কোনও চিকিৎসক। এমনকি নার্সের দেখাও পাওয়া যায় না। বলা যেতেই পারে এই উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করেন আশাকর্মীরা। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে স্থানীয় আশা কর্মীরা দাদাগিরি করে বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের।

অভিযোগ,উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে সন্ধে হলেই বসে মদের আসর। হাসপাতালের চারপাশে ও ছাদে বিভিন্ন নামিদামি ব্র্যান্ডের মদের বোতল যত্রতত্র পড়ে থাকে। এছাড়া হাসপাতালের অবস্থা ভগ্নদশা প্রায়। হাসপাতালের ভিতরে রোগী থাকার জায়গায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ। গ্রামের দুই থেকে তিন শতাংশ মানুষের কোভিডের ভ্যাক্সিনেশন হয়েছে। এছাড়া বাদবাকি সমস্ত গ্রামের মানুষ এখনও ভ্যাকসিনের মুখ দেখেনি। এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা জানান আশাকর্মীরা নিজের পরিচিতি লোকদের করোনা টিকা দেন। এছাড়াও রাজনৈতিক রঙ দেখে দেওয়া হয় টিকা। আরও অভিযোগ এই গ্রামে কারোর কোনও সমস্যা হলে উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে আশা কর্মীরা তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা করেন এবং বিভিন্ন বেসরকারি নার্সিংহোমে তাদেরকে রেফার করেন কমিশনের বিনিময়ে।

স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এবং চিকিৎসার এই দুরবস্থার দরুন গ্রামের সাধারণ মানুষের জীবন যাপন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ। সীমান্তপারের বাসিন্দা হওয়ায় যানবাহন সমস্যাও আছে। এই পরিস্থিতিতে এলাকার মানুষ চিকিৎসা পরিষেবা পাওয়ার জন্য প্রশাসনিকস্তরে দরবার করছেন। অভিযোগ মেলেনি সুরাহা। গ্রামবাসীদের দাবি,অবিলম্বে প্রশাসন নজর দিক রাঙিয়াপোতা উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের দিকে।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us