শিরোনাম
chingrighata-accident-police-miking
Accident: চিংড়িঘাটায় দুর্ঘটনা রোধে মাইকে প্রচার


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-21 14:26:01

চিংড়িঘাটা মোড়ে একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে। প্রাণ হারাতে হচ্ছে আট থেকে আশি সকলকে।  আর তাতেই উঠেছিল পুলিসি নিরাপত্তা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন। এরপর একপ্রকার ধমকের সুরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১৭ নভেম্বর একটি সভায় কলকাতা ও বিধাননগর পুলিসকে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। বলেন, আর একটাও অ্যাক্সিডেন্ট যেন না হয়। তারপরই কার্যত নড়েচড়ে বসেছে পুলিস-প্রশাসন।

চিংড়িঘাটায় যে সংযোগস্থল রয়েছে, তার একদিকে চলছে বিধাননগর পুলিসের নজরদারি। অন্যদিকে চলছে কলকাতা পুলিসের নজরদারি। শুধু তাই নয়, সিগন্যাল যখন হবে, তখনই একমাত্র পারাপার করতে পারছেন মানুষজন। তার পাশাপাশি চলছে মাইকিং-এ প্রচার। পথচলতি মানুষ, বাসচালক, বাইক আরোহীদের সচেতন করতেই এই ব্যবস্থা। কারণ এখনও অনেক মানুষ অসতর্কভাবেই করে চলেছেন রাস্তা পারাপার। পুলিসি ব্যবস্থা করা হয়েছে আঁটোসাঁটো।

মাইকিং এর মাধ্যমে বলা হচ্ছে, রাস্তার ডানদিক-বাঁদিক দেখে পারপার করতে। কানে হেডফোন দিয়ে রাস্তা পারাপার যেন কেউ না করে। ট্রাফিক আইন মেনে চলতে হবে সকলকে। ট্রাফিক আইন ভাঙলে শাস্তিও হতে পারে। বাইক আরোহীদের হেলমেট ব্যবহার বাধ্যতামূলক। বাইকে যতজন থাকবে, সবাইকে হেলমেট পরতে হবে। না হলে ফাইনও হতে পারে।

পুলিশি নজরদারির বিষয়ে স্থানীয় এক মহিলা জানালেন, খুবই ভালো ব্যবস্থা। প্রায় প্রতিদিনই এখানে অ্যাক্সিডেন্ট হচ্ছে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে খুব ভালো উদ্যোগ। এই জায়গায় প্রচুর ভিড় হয়। অনেকেই নিয়ম মানে না। সবাই যাতে নিয়ম মেনে চলে, সেদিকে একটু বেশি নজর দিলে ভালো হয়।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার, ১৬ নভেম্বর সকালে ফের চিংড়িঘাটা মোড়ে মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনার বলি হন এক যুবক। দ্রুতগতিতে আসা ট্রাকের ধাক্কায় মাত্র ২৬ বছরেই বেঘোরে প্রাণ যায় ওই বাইক আরোহীর। মৃত যুবকের নাম সাগর পাল। সল্টলেকে একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতেন তিনি। 

এর ঠিক কিছুদিন আগে এমনই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটেছিল ওই এলাকায়। বেলাগাম গতিতে আসা একটি গাড়ি ধাক্কা মারে পথচারীদের। ওই পথচারীরা দাঁড়িয়ে ছিলেন চিংড়িঘাটার জেব্রা ক্রসিং-এ। জেল হেফাজত হয় ওই ঘাতক গাড়ির চালকের।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us