ব্রেকিং নিউজ
  (12:20 PM)-এখনও সংকট কাটেনি পদ্মশ্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত কার্টুনিস্ট নারায়ণ দেবনাথের     (12:18 PM)-মদন মিত্রকে এবার সতর্ক করল দল     (11:17 AM)-ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা গোটা দেশে বেড়ে দাঁড়াল ৮২০৯, সুস্থ ৩১০৯     (11:14 AM)-করোনা রুখতে সকাল ১০টার পর থেকে বন্ধ গ্যালিফ স্ট্রিটের পাখিবাজার     (11:02 AM)-সিঁথি থানা এলাকায় রামলীলা বাগানের একটি বাড়িতে ভোররাতে আগুন লাগল     (08:54 AM)-প্রখ্যাত কত্থক শিল্পী পণ্ডিত বিরজু মহারাজ প্রয়াত     (08:48 AM)-সিরিয়াল দেখার ফাঁকে কসবায় দুঃসাহসিক চুরি     (08:48 AM)-রাজ্যের করোনা আক্রান্ত কমলেও মৃত্যুসংখ্যা উর্ধ্বমুখীই     (08:47 AM)-তাপমাত্রা স্বাভাবিকের নিচে, ফের বঙ্গে শীতের আমেজ  
ashok-kumar-homeopathy
Ashok Kumar নিজে শিখে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা করতেন অশোক কুমার


Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-29 20:00:46


ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতের কিংবদন্তি অভিনেতা অশোক কুমার অভিনয় ছাড়াও বেশ কয়েকটি বিষয়ে পারদর্শী ছিলেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা। বেঙ্গালুরুতে একবার লন্ডন থেকে ডাক্তার পাভেল বলে এক ভদ্রলোক এসেছিলেন। তিনি কিছুদিন সেখানে ছিলেন। স্থানীয় কয়েকজন পাভেলের কাছে চিকিৎসা করিয়ে খুব উপকার পেয়েছিলেন। এই সময় অশোক কুমার ওনার স্ত্রী শোভাদেবীকে নিয়ে হাওয়া বদল করতে সেখানে এসেছিলেন। কয়েকদিন যাবত শোভাদেবী খুব অসুস্থ ছিলেন। কিছুতেই সুস্থ হচ্ছিলেন না। তখন ওনার পরিচিত একজন শোভাদেবীকে ডাক্তার পাভেলকে দেখাতে পরামর্শ দেন। অশোক কুমার ওনার স্ত্রীকে পাভেলের কাছে নিয়ে যান। পাভেল শোভাদেবীকে দেখে ওষুধ দেন। সেই ওষুধ খেয়ে কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে যান শোভাদেবী। 

এই ঘটনার পর হোমিওপ্যাথির উপর বিশ্বাস বেড়ে যায় অশোক কুমারের। তিনি পাভেলের সাথে দেখা করে ওনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে, ওনার কাছ থেকে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা শিখতে চান। কিন্তু পাভেল রাজি হননি। তিনি বলেন, শেখা এতো সহজ ব্যাপার নয়। এর জন্য ফিজিওলজি, অ্যানাটমি জানতে হয়। ওসব তোমার দ্বারা হবে না। এই কথায় অশোক কুমারের জেদ আরও বেড়ে যায়। তিনি বেঙ্গালুরুর বাড়িতে ফিরে যান। পরেরদিন দোকান থেকে ফিজিওলজি, অ্যানাটমির ভালো ভালো সব বই কিনে আনেন। এবং দরজা-জানালা বন্ধ করে বাধ্য ছাত্রর মতো সাতদিন পড়াশুনা করে ফিজিওলজি, অ্যানাটমি সম্পর্কে জ্ঞান আহরণ করেন। তারপর ডাক্তার পাভেলের কাছে গিয়ে বলেন, আপনি ফিজিওলজি, অ্যানাটমি সম্পর্কে আমায় প্রশ্ন করুন। অবাক চোখে চেয়ে থাকেন পাভেল। তারপর প্রায় এক ঘণ্টা ধরে পরীক্ষা নেন অশোক কুমারের। অশোক কুমার সব সঠিক জবাব দেন। অভিভূত হন পাভেল। তিনি অশোক কুমারকে হোমিওপ্যাথি শেখাতে রাজি হয়ে যান। বাধ্য ছাত্রের মতো অশোক কুমার পাভেলের কাছে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা শিখতে থাকেন। এরপরে লন্ডনে ফিরে যান পাভেল। 

অশোক কুমার মুম্বই ফিরে আরও পড়াশুনো করে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা শুরু করেন। এটা ওনার একটা প্যাশন ছিল। অশোক কুমারের ওষুধ খেয়ে অনেকের কঠিন অসুখ ভালো  হয়ে যায়। এর কিছুদিন পর থেকে মৃত্যুর কয়েক বছর আগে পর্যন্ত চেম্বুরে ওনার বাড়ির নিচে প্রতিদিন সকালে দুই ঘণ্টা নিয়ম করে চেম্বার করতেন। বিনা পয়সায় রোগী দেখতেন ও বিনামূল্যে তাঁদের ওষুধ দিতেন। তৎকালীন অনেক বলিউড স্টার নানা শারীরিক সমস্যায় নিয়মিত ওনার কাছ থেকে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা করাতেন। 

এছাড়া উনি খুব ভালো ছবি আঁকতেন। একবার আমেরিকার বোস্টনে অশোক কুমারের বড় অপারেশন হয়। তারপর দেশে ফিরে ওনাকে এক বছর বিশ্রামে থাকতে পরামর্শ দেন  ডাক্তার। বাড়িতে বসে বসে কী করবেন ভাবছিলেন। অভিনেতা ইফতেকার খুব ভালো পেন্টার ছিলেন। ইফ্তেকারের পরামর্শে ওনার তত্ত্বাবধানে অশোক কুমার ছবি আঁকা শুরু করেন এবং পরবর্তী সময়ে একজন উঁচু দরের পেন্টারে পরিণত হন।




All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us