C A L C U T T A   N E W S

আন্তর্জাতিকআরও পড়ুন

CN CENTURY গুরুত্বপূর্ণ খবর

# ত্রিপুরায় জরুরি বৈঠক

# সন্ত্রাসবাদী ডেরায় তল্লাশি

# কাছাকাছি তালিবান ও চিন

# মৃত্যু শূন্য দিল্লি

# উবেগে তামিলনাড়ু

# কো- ভ্যাকসিনে 'ছাড়পত্র'

# এক তরফা প্রেমের মাশুল

# উত্তরাখণ্ডে উদ্ধার বাংলার ৫ পর্যাটকের দেহ

# নভেম্বরে শুরু শীতকালীন অধিবেশন

# অক্টোবরেই গোয়া সফরে রাহুল


খেলাধুলাআরও পড়ুন

দ্রাবিড়ই কোচ

শেষ পর্যন্ত রাহুল দ্রাবিড়কেই কোচ করা হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট দলের | ভারতীয় ক্রিকেট কেন, কোনও দেশের ক্রিকেটেই কোনও কোচ ছিল না এই সেদিনও | ভারত যখন কপিলদেবের নেতৃত্বে বিশ্বকাপ জয় করে, তখনও কোনও কোচ ছিল না | তখনকার দিনে বিদেশ সফর করলে সাথে একজন ম্যানেজার যেতেন | যদিও সেই ম্যানেজারের কিছু ভূমিকা থাকত। যথা ১১ জনের দল তৈরি করার সময় দলাধিনায়ক কখনও ম্যানেজারের সাহায্য নিতেন | বিদেশি দলে ম্যানেজারের ভূমিকা বা দায়িত্ব অনেক বেশি থাকলেও আমাদের অধিনায়করা ম্যানেজারদের পাত্তা দিতেন না কখনও | দেশে খেলা থাকলে একটা মজার বিষয় হত, একেক মাঠে একেকজন ম্যানেজার থাকতেন অথবা নির্বাচকরাই অনেক সময় এই দায়িত্ব পালন করতেন | বলা হত, তখনকার দিনে নির্বাচকদের বেশ একটা শহরে বেড়ানো হবে আর পাঁচতারা হোটেলে দিব্বি কমিটির পয়সায় থাকা যাবে | মূলত ম্যানেজারের কাজটা ছিল খারাপভাবে বলতে গেলে ফাই ফরমাশ খাটা | তাঁদের কোনও মাইনেও ছিল না | 

দিন পাল্টাল, জগমোহন ডালমিয়ার আমলে ক্রিকেট বোর্ডের রোজগার ১০০ গুণ বাড়ল | ধীরে ধীরে  ম্যানেজারের মাইনে হল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই পদ তুলে দিয়ে কোচ রাখা শুরু হল | কোচ হিসাবে দেশের প্রাক্তন খেলোয়াড়দেরই ঠিক করা হত | অজিত ওয়াদেকর থেকে সন্দীপ পাতিল, গায়কোয়ার প্রমুখ বিভিন্ন সময়ে কোচ হয়েছেন | কোচদের ক্ষমতাও বাড়ানো হয়েছে | তিনি হেড কোচ হিসাবে খেলোয়াড়দের অবস্থান ঠিক করবেন | তিনি অবশ্যই ব্যাটিং এবং বোলিং কোচ রাখতে পারেন | সৌরভ গাঙ্গুলির আমলে কোচ ছিলেন জন রাইট | জনের আমলে দলে অভূতপূর্ব উন্নতি হয়। কিন্তু তারপরই কোচ হন গ্রেগ চ্যাপেল | চ্যাপেল দলের হাল অতি খারাপ করে ফেলেন | সম্প্রতি কোচ ছিলেন রবি শাস্ত্রী, যিনি ঘোরতর সৌরভ বিরোধী এবং তাঁর আমলে প্রচুর জয় এলেও কোনও আইসিসি ট্রফি আসেনি | রবির ইচ্ছা ছিল আরও কিছুদিন কোচ থাকার। কিন্তু এখন ব্যাটন সৌরভের হাতে | তিনি নিয়ে এলেন বন্ধু দ্রাবিড়কে | মঙ্গলবারই ছিল আবেদন পাঠানোর শেষ দিন এবং এদিনই দ্রাবিড় আবেদন জানালেন | বর্তমানে তাঁর মাইনে একটি সেমেস্টারে ১০ কোটি টাকা | 



<

লাইফস্টাইলআরও পড়ুন

পরীক্ষার উত্তরপত্র দেখে হেসে গড়াগড়ি

স্কুলে পড়া না পারা কিংবা পরীক্ষার খাতায় এর দেখে ওর দেখে লেখা, সে তো চলেই আসছে। তবে এবার ঘটল এক অবাক করা কাণ্ড। সম্প্রতি এক ছাত্রের উত্তরপত্র ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। যা দেখে নেট নাগরিকরা হেসেই গড়াগড়ি। ঠিক কী ছিল ওই উত্তরপত্রে ? দেখা যাচ্ছে, ওই ছাত্র তাঁর উত্তরপত্রে যতরকম সম্ভব আজগুবি উত্তর লিখেছেন, যেসবের সঙ্গে প্রশ্নের কোনও মিলই নেই।  

যা দেখে কেউ কেউ তো আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য করেন, যে শিক্ষক উত্তরপত্র দেখেছেন, তিনি কোমায় চলে যাননি তো! নেটিজেনদের একাংশের মজার ছলে মন্তব্য, যে ছাত্র এই কাজটি করেছে, বলা যায়, সে খুব ট্যালেন্টেড। তবে ওই উত্তরপত্রে ১০ এর মধ্যে ০ দেওয়া হয়েছে। 

স্কুল-কলেজে সব সময়ই বিভিন্ন ধরনের ছাত্র-ছাত্রী দেখা যায়। এদের মধ্যে অনেকে অল্পেতেই পড়া বুঝে নেয়। আবার অনেকে কিছুতেই সেটি বুঝতে পারে না। এক-একজনের ক্ষমতা এক-এক রকমের হয়। কিন্তু তা বলে উত্তরপত্রে যা খুশি লেখা, এটা অনেককেই অবাক করেছে। 

সেই মজার উত্তরপত্র একবার দেখে নেওয়া যাক। এই মজাদার উত্তরপত্রটি ইনস্টাগ্রামে ফান কি লাইভে শেয়ার করা হয়েছে। তার পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ছিল আসলে ভাকরা-নাঙ্গাল প্রোজেক্ট নিয়ে। যদিও সেই প্রশ্নের উত্তরের শুরুতেই ছাত্র লিখেছেন যে সতলুজ নদীর উপর রয়েছে এই ভাকরা-নাঙ্গাল বাঁধ। 

এখানেই শেষ নয়, উত্তর ধীরে ধীরে যত এগতে থাকে, তার মধ্যে দেখা গিয়েছে আরও চমক। ওই প্রশ্নের উত্তরের মধ্যেই জায়গা করে নিয়েছে সর্দার প্যাটেল, টাটা, পণ্ডিত জওহরলাল নেহরু, গোলাপের ক্ষেত, চিনি, লন্ডন, জার্মানি এবং বিশ্বযুদ্ধ ইত্যাদির মতো বিষয়ও। যার সঙ্গে প্রশ্নের কোনও সম্পর্কই নেই। এসব দেখেই শিক্ষকের চক্ষু চড়কগাছ।

 তবে শিক্ষকও থাকতে না পেরে শেষমেশ সেই উত্তরপত্রে লিখেছেন, এই উত্তর দেখে কোমায় চলে গেছি। এখানে ভূগোল, ইতিহাস, কলা, সাহিত্য সব একাকার। তবে নেট নাগরিকদের কেউ কেউ বলছেন, সত্যি ছেলের এলেম আছে। 


2 days ago