ব্রেকিং নিউজ
school-opening-problem-school-dress
'অনাহারে নাহি খেদ, বেশি খেলে বাড়ে মেদ'

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-10-27 18:16:37


পুজোর ছুটিতে স্কুলপড়ুয়া বহু ছেলেমেয়ে যেমন বাড়িতে আছে, অনেকেই আবার ছুটি কাটাতে গিয়েছে কোনও না কোনও আত্মীয়ের বাড়ি। সেখান থেকেই ধেয়ে আসছে একের পর এক ফোন। আর মাগ্গিগন্ডার বাজারে সেই ফোন পেয়ে বাবা-মায়েরাও পড়ছেন দুশ্চিন্তায়। 

কী সেই দুশ্চিন্তা? 

দেড় বছরেরও বেশি সময় ভালোমন্দ খাবারে ডুবে থেকে ছেলেমেয়েদের শরীর আগের থেকে অনেক স্ফীত হয়েছে, শরীরের ছত্রে ছত্রে জমেছে মেদ। আগের প্যান্ট কোমরে যে আর আঁটছে না। জামার বোতামও তার সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। মাঝে তো আর মাত্র দিন পনেরো-কুড়ি বাকি। তাই বাড়িতে বাড়িতে আসছে অর্ডার, নতুন করে আবার জামা-প্যান্ট বানাতে হবে। এ  যেন আর এক চিন্তা। অগত্যা দল দল অভিভাবক ছুটছেন টেলারিং শপে। 

স্কুল খুলছে। খুলছে কলেজ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ঘোষণায় কোথাও কোথাও আতঙ্কের চোরাস্রোত বইলেও অনেকেই খুশি। কারণ স্কুল মানেই তো শুধু শিক্ষকের চোখরাঙানি, পড়াশোনায় ডুবে থাকা নয়। স্কুল মানে আবার বন্ধুবান্ধব, খোশগল্প আর খেলাধুলোর অনাবিল আনন্দ। 

একদিকে যেমন স্কুলে স্কুলে শুরু হয়ে গিয়েছে স্যানিটাইজেশন পর্ব, স্কুলরুম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার কাজ, তেমনই বাড়িতে বাড়িতেও শুরু হয়েছে বইপত্র গোছানো সহ নানা আনুষঙ্গিক প্রস্তুতি। আর বিপদের গন্ধ সেখানেই। আলমারি থেকে স্কুলের জামা-প্যান্ট বের করে দেখা যাচ্ছে, শরীরে তো ঢুকছেই না।

কোনও কোনও ক্ষেত্রে এই সমস্যা অবশ্য আগেই ধরা পড়েছে। অনেক স্কুলই বাড়িতে বসে অনলাইন ক্লাস করালেও স্কুল ড্রেস পরাটা বাধ্যতামূলক ছিল। কিন্তু যাদের এই নিয়ম ছিল না, তাদের কাছেই তা যেন বিনা মেঘে বজ্রপাত।   

চিকিৎসকরা অবশ্য এর মধ্যে নতুন কিছু দেখছেন না। তাঁদের মতে, অধিকাংশ ছেলেমেয়েই তো রয়েছে বয়ঃসন্ধির কালে। এটাই তো তাদের বাড়বাড়ন্তের সময়। কেউ লম্বা হবে, কেউ বাড়বে প্রস্থে। সবচেয়ে বড় কথা, বাড়িতে বা আত্মীয়ের বাড়িতে দীর্ঘ সময় থাকার ফলে খাদ্যাভ্যাসেও ভালোরকম পরিবর্তন এসেছে। এই সময়টায় ভুরিভোজ তো কম হয়নি। দীর্ঘ সময় স্কুল-কলেজ বন্ধ ছিল বলেই হয়তো সমস্যাটা আচমকা সামনে হাজির হয়েছে।  







All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us