ব্রেকিং নিউজ
bengal-school-reopens-teching-non-teaching-present
১৬ ই খুলছে স্কুল, সোমবারই হাজির শিক্ষক-শিক্ষাকর্মীরা

Post By : সিএন ওয়েবডেস্ক
Posted on :2021-11-01 15:59:02


ঘণ্টা বেজে গেছে। তবে এবার স্কুল ছুটির ঘণ্টা নয়। স্কুলে যাওয়ার ঘণ্টা। প্রায় ২০ মাস পর খুলতে চলেছে স্কুল-কলেজ। ১৬ নভেম্বর থেকে রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজ খোলার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শিলিগুড়ির প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মুখ্যসচিবকে স্কুল খোলার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও নিতে বলেছিলেন তিনি। তারপরই স্কুলে স্কুলে চলে গিয়েছে নির্দেশিকা। উল্লেখ্য, গত বছর মার্চ মাস থেকে বন্ধ রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজ।

তবে ছোটদের ক্লাস এখনই চালু হচ্ছে না। শুধুমাত্র নবম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পঠনপাঠন শুরু করার নির্দেশিকা রয়েছে। এই ঘোষণার পরই স্কুলে স্কুলে শুরু হয়ে গিয়েছে তোড়জোড়। জোর কদমে চলছে স্যানিটাইজেশন পর্ব। তারই ছবি ধরা পড়েছে বিভিন্ন স্কুলে। নির্দেশিকা অনুযায়ী সোমবার থেকেই স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষাকর্মীদের উপস্থিত থাকার কথা। সেই নির্দেশ মতো বাশঁদ্রোণীর খানপুর স্কুলে দেখা গেল সমস্ত টিচিং ও নন-টিচিং স্টাফদের।

এই প্রসঙ্গে খানপুর স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা জানিয়েছেন, "এতদিন পর স্কুল খুলছে, স্বভাবতই আমরা খুশি। সরকারি নির্দেশমতো আমরা প্রস্তুত নিয়েছি। একটা সমস্যা হয়তো আমরা ফেস করব। আমার স্কুলে নবম থকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত অনেক স্টুডেন্ট। প্রায় ৭০০ থেকে ৮০০র মতো। কোভিড প্রোটোকল মেনে সব ক্লাস করানো একটু মুশকিল হতে পারে। আরও টিচারের প্রয়োজন হতে পারে। সময় নিয়েও সমস্যা রয়েছে। তবে আমাদের তরফ থেকে ১০০ শতাংশ চেষ্টা করব।"

করোনা পরিস্থিতে কিভাবে স্কুলে ক্লাস করা হবে, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই গাইডলাইন জারি করেছে শিক্ষা দফতর। এবার দেখে নেওয়া যাক, কী রয়েছে সেখানে।

১ লা নভেম্বর থেকে সকল শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের আসতে হবে স্কুল-কলেজে।

হস্টেল খুললেও মানতে হবে কঠোর বিধিনিষেধ।

স্কুল-কলেজের কোনও পড়ুয়া হাতে আংটি, বালা বা গলায় হার পরতে পারবেন না। 

বেঞ্চে বসার ক্ষেত্রেও মানতে হবে বিধিনিষেধ। একটি বেঞ্চে দুজন বসলে তার পরের বেঞ্চে বসতে হবে একজনকে।

প্রার্থনা যার যার ক্লাসরুমেই হবে।

স্কুলের করিডর, গেটে নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে গোল দাগ কেটে দিতে হবে।

কোনও অভিভাবককে স্কুলে প্রবেশ করতে দেওয়া যাবে না।

মিড-ডে মিল থাকবে বন্ধ। সেক্ষেত্রে আগের মতো বাড়িতে মিড-ডে মিলের সরঞ্জাম দিয়ে দেওয়া হবে।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া অবধি স্কুলে কোনও সাংস্কৃতিক বা খেলাধুলোর অনুষ্ঠান করা যাবে না।

সব সময় ক্লাসে উপস্থিত থাকবেন একজন শিক্ষিকা।

স্কুলে থাকাকালীন কোনও কিছু শেয়ার করে ব্যবহার করা যাবে না। সে বই হোক বা পানীয় জল।

এখন দেখার, কতটা মানা হয় এইসব বিধিনিষেধ। 







All rights reserved © 2021 Calcutta News   Home | About | Career | Contact Us