শীতে ব্যথা বাড়লে অবহেলা নয়

0
70

শীতকাল এলেই অনেকে ব্যথা নিয়ে রীতিমতো আতঙ্কে থাকেন। শুধু আর্থ্রাইটিসজনিত জয়েন্টের ব্যথা ছাড়াও ঘাড়, কোমর, ঘাড় ও মাংসপেশির ব্যথায় অনেকে আক্রান্ত হন। বেড়ে যায় পুরানো ব্যথার তীব্রতা। কারও কারও বেশি ঠান্ডায় মাইগ্রেনের জন্য মাথাব্যথা বাড়ে। আবার কারও সাধারণ সর্দি-কাশি থেকে সাইনোসাইটিস হয়ে মাথাব্যথা হতে পারে। চিকিত্সকরা বলছেন, শীতে হাত ও পায়ের দিকে রক্তচলাচল কমে যায়। ফলে হাড়ের জয়েন্টে প্রদাহ বৃদ্ধি পেয়ে ব্যথা, জয়েন্ট ও মাংসপেশি শক্ত হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয়। বিভিন্ন জয়েন্টের চারপাশের ত্বক খুব বেশি ঠান্ডা হলে স্নায়ু প্রান্তগুলোর সংবেদনশীলতা বেশি হয়। শীতকালে শক্ত কোনো কিছুর সঙ্গে আঘাত বা স্পর্শ লাগলে ব্যথা বেশি অনুভূত হয়। শীতে অনেক ক্ষেত্রে ভিটামিন-ডির পরিমাণ কমে যায়। ডাক্তাররা বলছেন, ওষুধ ছাড়াও ব্যথার জায়গায় অন্তত দিনে দুবার সেঁক দিলে উপকার হবে। ব্যথা অসহনীয় হলে ফিজিও তেরাপি করা যেতে পারে। যথেষ্ট পরিমামে প্রয়োজনীয় পুষ্টি গ্রহণ খুব জরুরি। সর্দি কাশি হলেই ব্যস্থা নিতে হবে।