রাজ্যে ডেঙ্গুতে মৃত ২৭, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

0
162

রাজ্যে ডেঙ্গুতে ২৭ জন মারা গিয়েছেন। এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত ৪৪,১৫৮ জন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মঙ্গলবার বিধানসভায় এই তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, যত না ডেঙ্গু নিয়ে বিরোধীরা কথা বলছেন, তার থেকে বেশি মানুষকে ভয় দেখানো হচ্ছে। অপপ্রচার চলছে এখানে। তাঁর দাবি, ৫১ হাজার মানুষ ডেঙ্গু নিয়ে সচেতনতার কাজ করছেন। প্রচুর টাকা খরচ করছে সরকার। তাঁর কথায়, ডেঙ্গুর লার্ভা কি আমরা আমদানি করেছি, নাকি সিপিএম, কংগ্রেস করেছে। ৩৪ বছর বামেরা ক্ষমতায় ছিল। তখন কত লোক মারা গিয়েছে সেটা জানা দরকার। এখন তিন হাজার ডাক্তার, ৪ হাজার নার্স ডেঙ্গু মোকাবিলায় কাজ করছেন। এবছর রাজস্থানে সোয়াইন ফ্লুতে ২০৮ জন মারা গিয়েছে। ওখানে কংগ্রেসের সরকার, তাই কেউ কিছু বলবে না। গুজরাতে ৪১৪১ জন আক্রান্ত। অসমে ১৪৯২ জন আক্রান্ত, মারা গিয়েছেন ১৮৩ জন। তাঁর আবেদন, ডেঙ্গু নিয়ে রাজনীতি করবেন না। শিলিগুড়িতে সবথেকে বেশি আক্রান্ত। সেখানকার মেয়র তাই বড় বড় ভাষণ দিচ্ছেন। তাঁর দাবি, শীত পড়লেই ডেঙ্গুর সংক্রমণ কমে যাবে।
এদিন ডেঙ্গু নিয়ে উত্তপ্ত হয় বিধানসভা। বিরোধীরা অভিযোগ তোলেন, ডেঙ্গু মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ। সিপিএমের অশোক ভট্টাচার্য বলেন, সরকার তথ্য গোপন করছে। ডেঙ্গু ঠেকাতে স্বাস্থ্যদফতর সফল হয়নি। শুধু অফিসার বদল করে ডেঙ্গুর মোকাবিলা করা যাবে না। কংগ্রেসের নেপাল মাহাত বলেন, ভয়াবহ আকার নিয়েছে ডেঙ্গু। সচেতনতার অভাব রয়েছে। বিরোধীরা এই ইস্যুতে ওয়াকআউট করেন। এই ওয়াক আউট নিয়ে বিরোধীদের বিঁধে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যারা আলোচনা চাইছেন তাঁরাই বিধানসভা ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন। একটা আইন হওয়া দরকার যে পুরো সময় উপস্থিত থাকতে হবে।