চিনের দেওয়াল ভাঙছে

0
180

সপ্তম আশ্চর্যের একটি, চিনের বিখ্যাত প্রাচীর ভেঙে পড়ছে। দেখে একটাই টানা পাঁচিল মনে হলেও আসলে তা পাথরের গাদা দিয়ে তৈরি। কোরিয়া সীমান্ত থেকে গোবি মরুভূমি পর্যন্ত যার বিস্তৃতি।
কয়েক হাজার মাইল লম্বা ২ হাজার বছর পুরানো দেওয়ালের অনেক অংশই ভেঙে পড়ছে। ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক জানাচ্ছে, প্রায় ৩০ শতাংশই ক্ষয়ের কবলে। একেবারে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে তা প্রাকৃতিক নিয়মেই। সেইসব এলাকায় পৌঁছনোই কঠিন কাজ। একেবারেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। অত্যন্ত বিপদবহুল সেসব জায়গা।
এই অবস্থায় চিন সরকার শরণাপন্ন হয়েছে ড্রোনের। ড্রোনের সাহায্যেই চিন ভেঙে পড়া প্রাচীরের মানচিত্র, মাপজোক সবই ঠিক করছে। তৈরি করে দিচ্ছে বিস্তারিত তথ্যভাণ্ডার। তারপর তার সাহায্যে ধীরে ধীরে মেরামত করা হচ্ছে ভেঙে পড়া অংশ। এই তথ্য দিয়ে দেওয়ালের ভর দেওয়ার কাঠামো তৈরি হচ্ছে।
বেজিংয়ের ৫০ মাইল দূরে ১৩৬৪-১৬৪৪ সালের মিং বংশের আমলে তৈরি দেওয়ালের জিয়ানকাউয়ের অংশে ফ্যালকন ড্রোন উড়িয়ে থ্রিডি ছবি তোলা হয়েছে। বিশেষত্জ্ঞরা জানাচ্ছেন, নিছক নতুন পাথর আর কংক্রিট দিয়ে পুরনো পাথরের জায়গা ভরাট করা নয়, এই কাজ অত্যন্ত কঠিন। দেওয়ালের ফাঁকফোকর, মেধের নকশা এমনকী, চুনের পরিমাণও মেপে দেখা হচ্ছে।