গরম এড়াতে কী করবেন

0
63

অসহ্য গরমের দিন এল বলে। কী কে মোকাবিলা করবেন গরমের সঙ্গে জেনে নিন।
কমিয়ে আনুন শারীরিক পরিশ্রম কমিয়ে দিন যতটা সম্ভব। গরমে বেশি ব্যায়াম করার প্রয়োজন নেই। ব্যায়ামে বাড়ে শরীরের তাপমাত্রা। তবে শারীরিক ফিটনেস বজায় রাখতে যেটুকু ব্যায়াম করবেন তা যেন সীমিত থাকে। বরং খুব ভোরে হেঁটে আসুন খোলা বাতাসে কিংবা সাঁতার কাটুন কিছুক্ষণ।
দুঃসহ গরমে ঘামের সঙ্গে শরীর থেকে বেরিয়ে যায় প্রচুর পরিমাণে জল। সেই ঘাটতি পূরণ করতে আপনাকে অনেক বেশি জল খেতে হবে। এ ছাড়া স্বাভাবিকভাবেই গরমে দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। শরীরের কোষগুলোকে সজীব রাখতে হলে চাই জল। জলের অভাব হলে মাংসপেশি ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। তাই যেখানেই যান, ব্যাগে রাখুন প্লাস্টিকের বোতলের জল। তরল খান বেশি করে। শরীর সতেজ লাগবে। স্যুপ, ফলের রস খান। সবজি বাদ দেবেন না। ঘামের সাথে বেরিয়ে যায় নুন। আপনি খাবার স্যালাইন খান। ডাবের পানি, তরমুজও কাজে দেবে। পোশাক পরুন হালকা রঙের। গাঢ় রঙের পোশাক রোদ শোষণ করে বলে গরম বেশি লাগে। কিন্তু হালকা রঙের পোশাক রোদ যতটুকু না শোষণ করে তার চেয়ে প্রতিফলিত করে। ভালো হয় সাদা রঙের পোশাক হলে। গরমে সিনথেটিক পোশাক কখনোই পরবেন না। সব সময় সুতি ও ঢিলেঢালা পোশাক পরুন।
যদি গরম বেশি পড়ে তাহলে ভারী ও কড়া গন্ধের পারফিউম মাখবেন না। কড়া পারফিউমে আপনার শরীরে গরম লাগার ভাব বেড়ে যাবে। এ সময় একেবারে হালকা গন্ধের পারফিউম মাখুন। কিছু কিছু পারফিউম আছে যা মাখলে শরীরে ঠাণ্ডা অনুভূত হয়। সিগারেটের অভ্যাস থাকলে ত্যাগ করুন সেটা। ধূমপানে শরীর আরো গরম হয়ে উঠবে। বদলে খান একটি করে ভিটামিন সি ট্যাবলেট। এড়িয়ে চলুন চা, কফি ও অ্যালকোহল। এগুলো জলশূন্যতা। চেষ্টা করুন ছায়ার মধ্যে থাকতে। রোদে গেলে মাথায় রাখুন চওড়া ক্যাপ, স্কার্ফ অথবা ছাতা। মেখে চলুন সানস্ক্রিন ক্রিম বা লোশন। চোখে রাখুন সানগ্লাস। সম্ভব না হলে দিনে দু’তিনবার স্নান করুন। শরীরে তেলজাতীয় কিছু মাখবেন না।