ছাত্রবিক্ষোভে বন্ধ সরবর্ন বিশ্ববিদ্যালয়

0
21

নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে অন্তত দুদিন বন্ধ করে দেওয়া হল প্যারিসের বিখ্যাত সরবর্ন বিশ্ববিদ্যালয়কে। উচ্চশিক্ষায় সংস্কারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদরত প্রায় ২০০ ছাত্রছাত্রীকে পুলিশবাহিনী বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর থেকে বের করে দেয়। তাঁরা সেখানে অবস্থান করছিলেন। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে ছাত্রছাত্রীদের অ্যাডমিশনের মাপকাঠি ও মান নির্ধারণের ক্ষমতা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে সরকার। তাতে নিখরচায় শিক্ষার নীতি লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে মনে করছেন ছাত্রছাত্রীরা। এখন স্কুলস্তর পাশ করলে যে কেউ সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে পারে। মার্চ থেকেই তার বিরুদ্ধে চলছে ছাত্রবিক্ষোভ। ছাত্ররা ১২টি বিশ্ববিদ্যালয় কার্যত দখল করে রেখেছেন। ১৯৬৮ সালের গণবিক্ষোভের কেন্দ্রবিন্দু ছিল এই সরবর্ন বিশ্ববিদ্যালয়। সপ্তাহের পর সপ্তাহ চলেছিল সেই আন্দোলন। এবার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তিনঘণ্টার আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার পর রাতে পুলিশ চত্বরে ঢোকে। কোনও অশান্তি ছাড়াই তাদের বের করে দেওয়া গিয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। শনি ও রবিবার বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরঁ বলেছেন, ছাত্ররা নন, বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে ভাড়াটে আন্দোলনকারীরা। শত বিরোধিতাতেও যে সংস্কার তিনি থামাবেন না, তাও জানিয়ে দেন তিনি।