নবান্নে বৈঠকে ডাক চিকিৎসকদের

0
1082

সয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এনআরএস হাসপাতালে এসে ক্ষমা চাইতে হবে। পাশাপাশি পুলিসকে নিরাপত্তার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে এবং কোনও রকম শর্ত ছাড়াই জুনিয়র ডাক্তারদের বিরুদ্ধে জায়ের হওয়া সমস্ত কেস তুলে নিতে হবে। এই শর্তগুলি মেনে নিলেই উঠিয়ে নেওয়া হবে জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৃহস্পতিবার এসএসকেএম হাসপাতালে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে গিয়ে দাবি করেছিলেন এনআরএস কান্ডে জুনিয়র ডাক্তাররাও দোষী। ফলে অবিলম্বে কর্মবিরতি তুলে নিয়ে কাজে ফিরুক তাঁরা। এরজন্য ৪ ঘন্টা সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এরপরও পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে, জুনিয়র ডাক্তাররা কর্মবিরতি যেমন চালিয়ে গিয়েছেন, তেমনই সিনিয়র ডাক্তাররাও গণ ইস্তফা দিয়ে চলেছেন এর প্রতিবাদে। ফলে অবস্থা ক্রমশ হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে রাজ্য প্রশাসনের বলে মনে করছেন অভিজ্ঞ মহল। কাঁচড়াপাড়াতে দলীয় কর্মীসভা সেরে নবান্নে ফিরেই মুখ্যমন্ত্রী পরিস্থিতি মোকাবিলায় উদ্যোগী হলেন। কলকাতা শহরের কয়েকজন খ্যাকনামা সিনিয়র ডাক্তারকে নবান্নে আলোচনায় আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। তাঁর ডাকে সারা দিয়ে নবান্নে যাচ্ছেন বিশিষ্ট চিকিৎসক সুকুমার মুখোপাধ্যায়, অলকেন্দু ঘোষ, অভিজিৎ চৌধুরী ও এম এল সাহা সহ কয়েকজন। সূত্রের খবর, গণহারে চিকিৎসকদের ইস্তফা দেওয়া আটকানো সহ জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনের জট কাটানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করবেন মুখ্যমন্ত্রী।