তিতলির জেরে ওড়িশায় প্রবল ঝড়বৃষ্টি

0
1129

সাইক্লোন তিতলি বৃহস্পতিবার সকালে ওডিশার গঞ্জাম জেলার গোপালপুরে আছড়ে পড়েছে। হাওয়ার গতিবেগ ঘণ্টায় ১২৬ কিলোমিটার। দুই থেকে তিন ঘণ্টার মধ্যে এই ঘূর্নিঝড় ওডিশার উপকূল পেরিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। ক্রমশ দুর্বল হয়ে তিতলি বঙ্গোপসাগরের উত্তর পশ্চিমে সরে যাচ্ছে। এগোচ্ছে ঘণ্টায় ১৯ কিলোমিটার বেগে। অন্ধ্রের কলিঙ্গপত্তনমে হাওয়ার গতিবেগ ৫৬ কিলোমিটার ঘণ্টায়। এর প্রভাবে গঞ্জাম, গজপতি, পুরী, খুর্দা ও জগতসিংপুরে প্রবল বৃষ্টি-ঝড় হচ্ছে। বহু এলাকায় গাছ উপড়ে পড়েছে। পড়ে গিয়েছে বিদ্যুতের খুঁটি। সড়ক যোগাযোগও বিপর্যস্ত হয়েছে। ওডিশার সরকার আগেই উপকূল এলাকার ৩ লাখেরও বেশি বাসিন্দাকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে গিয়েছে। বহু ট্রেন হয় বাতিল হয়েছে, নয়তো দেরিতে চলাচল করছে। অন্য়দিকে, শুক্রবার দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া ও মুর্শিদাবাদে ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। বুধবার থেকে আরও দুইদিন সমুদ্রও উত্তাল থাকতে পারে। শুক্রবার পর্যন্ত সমুদ্রে যেতে মৎস্যজীবীদের নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে, দুর্যোগের জেরে বাতিল করা হয়েছে বহু দূরপাল্লার ট্রেন। পাশাপাশি ওড়িশার বিভিন্ন জেলায় বন্ধ রাখা হল রেলের নিয়োগ পরীক্ষা। ১১ ও ১২ অক্টোবর এই পরীক্ষাগুলি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রেলবোর্ডে থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, তিতলির কারণে পরীক্ষাগুলি বাতিল করা হচ্ছে। ওড়িশার ভুবনেশ্বর, কটক, ঢেঙ্কানল, সম্বলপুর প্রভৃতি পরীক্ষাকেন্দ্রগুলির পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। পরবর্তী নতুন দিনক্ষণ আবেদনকারীদের মোবাইল নম্বরে ও বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, স্কুল ও কলেজ গুলিতেও ১১ ও ১২ অক্টোবর ছুটি ঘোষণা করেছে ওড়িশা সরকার। পরিস্থিতির দিকে সতর্ক নজর রাখা হচ্ছে। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকেও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সমস্ত সরকারি কর্মীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।