প্রয়াত নবনীতা দেবসেন, শেষকৃত্য আজ

0
164

ক্যান্সারের সঙ্গে অসম লড়াইয়ে হেরে গেলেন নবনীতা দেবসেন। বাঙালির প্রিয় লেখিকা, গবেষক, অধ্যাপিকা। বয়স হয়েছিল ৮১। বৃহস্পতিবার সন্ধেয় তাঁর হিন্দুস্থান পার্কের বাড়ি ‘‌ভালোবাসা’য় মৃত্যু হয়েছে তাঁর। বৃহস্পতিবার রাতে বাড়িতে ছিল মরদেহ। শুক্রবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্রসদন ঘুরে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।
বাবা কবি নরেন্দ্র দেব, মা রাধারানী। ১৯৩৮ সালের জানুয়ারি মাসে জন্ম নবনীতার। গোখেল মেমোরিয়াল স্কুলে পড়াশোনা শুরু। গ্র‌্যাজুয়েট হয়েছিলেন প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে। ১৯৫৮ সালে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ পাশ করেন। পরে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিসটিংশন নিয়ে আবার এমএ পাশ করেন সাহিত্যের এই কৃতী ছাত্রী। ইন্ডিয়ানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি। পড়িয়েছেন কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। তারপর দীর্ঘসময় অধ্যাপনা করেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগে। তাঁর প্রাক্তন স্বামী নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। দুই মেয়ে অন্তরা আর নন্দনা।
‌নবনীতা দেবসেনের প্রথম কবিতার বই ‘প্রথম প্রত্যয়’। প্রথম উপন্যাস ‘আমি অনুপম’। বহু জনপ্রিয় বইয়ের স্রষ্টা তিনি। তাঁর জগৎমোহনবাবুর জগৎ, খগেনবাবুর পৃথিবী, পলাশপুরের পিকনিক, ট্রাকবাহনে মাকমোহনে, বুদ্ধিবেচার সওদাগর, গল্পগুজব, অন্যান্য গল্প, বসন মামার বাড়ি ছাড়াও স্বাগত দেবদূত, তিন ভুবনের পারের মতো কাব্যগ্রন্থ রয়েছে। ১৯৯৯ সালে আত্মজীবনীমূলক রম্যরচনা ‘নটী নবনীতা’ বইটির জন্য তিনি সাহিত্য আকাদেমি পুরস্কার লাভ করেন। ২০০০ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন।