বন্ধুর পদোন্নতি সহ্য করতে না পেরে খুন!

0
508

চাকরিতে বন্ধুর উন্নতি মেনে নিতে না পেরে বন্ধুকেই খুন করল যুবক। বৃহস্পতিবার সকালে সরাসরি থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে সে। এই ঘটনায় তাজ্জব পুলিশ আধিকারিকরাও। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমান শহরের আলমগঞ্জের একটি রাইস মিলে। নিহত যুবকের নাম টুটুল মণ্ডল (১৯)। বাড়ি বীরভূমের সাঁইথিয়ার পাথুরি গ্রামে। অভিযুক্ত বন্ধুর নাম বিকাশচন্দ্র গড়াই। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উচ্চমাধ্যমিক পাশ করা মেধাবী ছাত্র টুটুল মণ্ডলকে তাঁদেরই গ্রামের বিকাশচন্দ্র গড়াই বর্ধমানের ওই রাইস মিলে কাজের ব্যবস্থা করে দেন। শ্রমিক হিসাবে কাজে ঢুকলেও পড়াশোনা জানার সুবাদে রাইস মিল কর্তৃপক্ষ টুটুলকে শ্রমিক থেকে সুপারভাইজার পদে তুলে নিয়ে আসে। এতেই চটে লাল হয়ে যান বিকাশ। এই নিয়ে প্রায়ই টুটুলকে হুমকি দিত বিকাশ বলে দাবি করেছেন নিহতের পরিবার। তাঁর মূল ক্ষোভ ছিল সে কাজে ঢোকালেও টুটুলের অর্ডার মেনে কাজ করতে হচ্ছে। বুধবার রাতে এই নিয়ে বচসার জেরেই টুটুলের মাথায় ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে বিকাশ। বর্ধমানের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রিয়ব্রত রায় জানিয়েছেন, খুনের বিষয়টি বিকাশ স্বীকার করেছে। খুন করার পরই বৃহস্পতিবার রাতেই সে বর্ধমান থানায় আত্মসমর্পণের চেষ্টাও করে। কিন্তু ভয় পেয়ে পালিয়ে যায়। যদিও বৃহস্পতিবার সকালে সে নিজে এসেই থানায় আত্মসমর্পণ সে।