একই মাঠে মোদি-মমতার সভা

0
332

অবশেষে এসপিজি ও জেলা প্রশাসনের বৈঠকে কাটল জট। কোচবিহারে একই মাঠে মোদি-মমতার সভা। প্রধামমন্ত্রীর সভাস্থল ঘিরে দিনভর চলল রাজনৈতিক তরজা। ৭ তারিখ প্রধানমন্ত্রীর সভা থাকলেও, তার আগে ৮ তারিখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার জন্য মাঠে মঞ্চ বাঁধার কাজ শুরু করে তৃণমূল। ফলে একই মাঠে দুই সভা ঘিরে তৈরি হয় জটিলতা। বিজেপি শিবিরের অভিযোগ ছিল, জেলা প্রশাসন অনুমতি দিলেও মাঠের হস্তান্তর হয়নি। উলটে মাঠে সভার কাজ শুরু করেছে তৃণমূল। ঘটনায় প্রশাসনের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগের পাশাপাশি দ্রুত সমস্যা সমাধানে সরব হয় বিজেপি নেতৃত্ব। প্রশাসন মাঠ না দিলে দলীয়ভাবে মাঠ দখলের হুঁশিয়ারি দেন কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক।
বিজেপির অভিযোগের পালটা জবাব দেয় শাসক শিবিরও। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে আসরে নামে এসপিজি ও জেলা প্রশাসন। দু-পক্ষের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, মাঠে আলাদা করে তৈরি হবে প্রধানমন্ত্রীর সভামঞ্চ। রাসমেলা মাঠের কোণাকুণি তৈরি হবে প্রধানমন্ত্রীর মঞ্চ। এছাড়া মাঠে তৃণমূলের তৈরি মণ্ডপ খুলে ফেলতে হবে। তৃণমূল ও বিজেপি উভয়পক্ষই সিদ্ধান্ত মেনে নেয়। দিনভর সভাস্থল ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল রাজনৈতিক টানাপোড়নে উত্তপ্ত হয় কোচবিহারের রাজনীতি। অশান্তির আশঙ্কাও করছিল জেলা প্রশাসন। বেলাশেষে সমস্যা মেটায় স্বস্তিতে দুই শিবির।