গণ ইস্তফায় সামিল উত্তর থেকে দক্ষিণ

0
1030

দ্রুত চিকিৎসকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহারের জন্য রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠির আর্জির পরও পুরো স্বাভাবিক হল না পরিস্থিতি। তাঁদের দাবিতে অনড় জুনিয়র ডাক্তাররা। অন্যদিকে রাজ্যজুড়ে ডাক্তারদের ইস্তফা দেওয়ার পালা অব্যহত। আরজি কর মেডিকেল কলেজের ৮৫ জন চিকিৎসক একযোগে ইস্তফা দিয়েছেন শুক্রবার। ফলে চিকিৎসা পরিষেবা কার্যত ভেঙে পড়েছে উত্তর কলকাতার এই গুরুত্বপুর্ণ হাসপাতালে। এছাড়াও উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের ১২ জন চিকিৎসকও এদিন ইস্তফা দিয়েছেন। পাশাপাশি, মনোরোগ বিভাগের দুই চিকিৎসকও এদিন সকালে ইস্তফা দেন। গতকালই সাগর দত্ত হাসপাতালে ১০ জন চিকিৎসক ইস্তফা দিয়েছিলেন। এমনকি আন্দোলনের সূতিকাগৃহ এনআরএস হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিনটেন্ডেন্ট ও ভাইস প্রিন্সিপাল সৌরভ চট্টোপাধ্যয় এবং প্রিন্সিপাল শৈবাল মুখোপাধ্যায় দুজনেই পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন স্বাস্থ্যভবনে। তবে শুক্রবার সকালে খুলেছে এসএসকেএম হাসপাতালের জরুরি বিভাগ। তবে বন্ধ আউটডোর। জরুরি পরিষেবা চালু হলেও এনআরএসের গেট আগলে রয়েছেন বিক্ষোভরত জুনিয়র ডাক্তাররা। শোনা যাচ্ছে, শুক্রবার এনআরএস হাসপাতালের আরও ১৬ জন সিনিয়র চিকিৎসক ইস্তফা দিতে পারেন। গণ ইস্তফার পথে হাঁটতে পারেন আলিপুরদুয়ারের জেলা হাসাপাতালের চিকিৎসকরাও। ফলে কপালে চিন্তার ভাঁজ বাড়ছে স্বাস্থ্য দফতরের, সেইসঙ্গে উদ্বেগ বাড়ছে অপেক্ষারত রোগীদের আত্মীয় পরিজনদের।